খুবিতে পালিত হলো কটকা ট্রাজেডি স্মরণে শোক দিবস

0
95
khulna

khulnaখুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) পালিত হলো কটকা ট্রাজেডি স্মরণে শোক দিবস। ২০০৪ সালের এ দিনে সুন্দরবনের কটকায় সফরে যেয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য ডিসিপ্লিনের ৯ জন এবং বুয়েটের ২ জনসহ মোট ১১ জন ছাত্র-ছাত্রী সমুদ্রে ডুবে মারা যায়।

দিবসটি পালন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে সাজানো হয়েছে শোকাবহ সাজে। ক্যাম্পাসের প্রধান ফটক থেকে শুরু করে শহীদ মিনার চত্বর হয়ে কটকা স্মৃতিস্তম্ভ পর্যন্ত প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কের দুপাশের সারিবদ্ধ গাছে কালো কাপড়ে নিহত শিক্ষার্থীদের নাম লিখে শোকের আবহ তৈরি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় কালোব্যাজ ধারণ করে হাদী চত্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের নেতৃত্বে শুরু হয় র‌্যালী। র‌্যালীটি প্রশাসন ভবনের সামনে হয়ে কটকা স্মৃতি স্তম্ভে পৌঁছে। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ভাইস- চ্যান্সেলর শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের খানজাহান আলী হল, খান বাহাদুর আহছানউল্লা হল, অপরাজিতা হল, স্থাপত্য ডিসিপ্লিনসহ বিভিন্ন ডিসিপ্লিন, ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। শ্রদ্ধাঞ্জলির পর নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে ভাইস-চ্যান্সেলরের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মাধ্যমে র‌্যালি ও শ্রদ্ধাঞ্জলি পর্ব শেষ হয়। এর পরই ১নং একাডেমিক ভবনের সামনে চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ভাইস-চ্যান্সেলর।

দিনব্যাপী এ কর্মসূচির মধ্য থাকবে- বাদ যোহর বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদে মিলাদ, এতিমদের সাথে মধ্যাহ্ন ভোজ, বিকেল সাড়ে ৫ টায় শোক সভা, স্মৃতিচারণ, সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্জ্বলন এবং তথ্যচিত্র প্রদর্শন।

এসব কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার, ডিনবৃন্দ, রেজিস্ট্রার, ডিসিপ্লিন প্রধান, প্রভোস্টবৃন্দ ও বিভাগীয় প্রধানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারি এবং বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করবেন।

কেএফ