যুক্তরাষ্ট্রে দেবযানীর বিরুদ্ধে করা মামলা খারিজ

0
84

Devyani_Khobragadeভারতীয় কূটনীতিক দেবযানী খোবরাগাড়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে দায়ের হওয়া মামলা বুধবার খারিজ করেছেন মার্কিন আদালত। আদালতের সিদ্ধান্তে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন দেবযানীর আইনজীবী। ভারত থেকে নিয়ে যাওয়া নিজ গৃহকর্মীকে প্রাপ্য মজুরি না দেওয়া ও ভিসা জালিয়াতির অভিযোগে দেবযানীকে গত ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে গ্রেপ্তার করা হয়।এ্ ঘটনার জের ধরে নয়াদিল্লি ও ওয়াশিংটনের সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়।খবর বিবিসি, টাইমস অব ইন্ডিয়ার।
বিচারক তাঁর আদেশে বলেন, দেবযানীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে অভিযোগ গঠনের সময় তাঁর কূটনৈতিক দায়মুক্তির সুযোগ ছিল। তাই তাঁর বিরুদ্ধে করা মামলাটি খারিজ করা হয়েছে।
আদালতের এই আদেশের পর মার্কিন সরকার নতুন করে দেবযানীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনতে পারবেন। তবে ব্যাপারে এখনো কিছু জানা যায় নি।
গৃহকর্মী সংগীতা রিচার্ডের  ভিসা আবেদনে মজুরি নিয়ে মিথ্যা তথ্য দেওয়া এবং  চুক্তি অনুযায়ী তাঁকে ন্যায্য পারিশ্রমিক না দেওয়ার অভিযোগে গত বছর ১২ ডিসেম্বর নিউইয়র্কে ভারতীয় কনস্যুলেটের তৎকালীন ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানীকে গ্রেপ্তার করে মার্কিন পুলিশ। গ্রেপ্তারকালে প্রকাশ্যে তাঁকে হাতকড়া পরানো হয়। সাধারণ অপরাধীদের মতো তাঁকে বিবস্ত্র করে তল্লাশিও করা হয়। পরে তিনি জামিনে ছাড়া পান।

ভারত দেবযানীর কূটনৈতিক দায়মুক্তি বা ছাড়ের দাবি পরিত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের  ফেডারেল আদালতের গ্র্যান্ড জুরি দেবযানীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। পরে তাঁকে যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগের নির্দেশ দেয় মার্কিন সরকার। চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরে আসেন দেবযানী।

দেবযানী কোনো ধরনের অনিয়ম করার কথা অস্বীকার করেন। দেবযানীর ঘটনায় ভারতজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। নয়াদিল্লি যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ক্ষমা প্রার্থনার দাবি জানায়। কিন্তু  ক্ষমা না চেয়ে দেবযানীকে বিচারের মুখোমুখি করার ব্যাপারে অনড় থাকে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে দু্’ দেশের সম্পর্কে ব্যাপক অবনতি ঘটে। এমনকি ভারত থেকে মার্কিন কূটনীতিককে সরিয়ে দেওয়া হয়।