ড্রেজার কেনায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা

0
78

Dregerনৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৬৫০ মিলিমিটার ডায়ামিটারের ড্রেজার ও যন্ত্রাংশ কেনায় দুই মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে হাইকোর্ট। মন্ত্রণালয় তিন সেট ড্রেজার কেনার উদ্যাগ নিয়েছিল।

কিন্তু দরপত্র প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে আনন্দ শিপইয়ার্ড এবং এলিকট ড্রেজারস এলএলসি প্রক্রিয়াটি স্থগিত রাখতে আদালতের শরনাপন্ন হয়। মঙ্গলবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক এবং বিচারপতি আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ কেনা-কাটা স্থগিত রাখার এ আদেশ দেন।

বিচারপতি কাজী রেজাউল হক এবং বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ সময় সরকারকে গত ২৬ ডিসেম্বর পাসকৃত নীতিমালা সম্পর্কে কারণ দর্শানোর রুল জারি করেছে। রেই নীতিমালা অনুসারে সাত দিনের মধ্যে জমাকৃত দরপত্র বাছাইয়ের বিধিমালা বেঁধে দিয়েছিল সরকার।

আদালত এ বিষয়ে বুড়িগঙ্গা খননের জন্য ড্রেজার কেনা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড্রেজিং অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীকে কারণ দর্শাতে বলেছেন। কেন ভোস্টা এলএমজি-কর্ণফুলি জয়েন্ট ভেঞ্চারকে ড্রেজার সরবরাহের আদেশ দেওয়া হয়েছে তা ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি ড্রেজার অধিদপ্তরকে আদালতের আদেশের কপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে ড্রেজারের জন্য প্রাপ্ত দরপত্র নতুনভাবে পুনর্মূল্যায়ন করতে বলেছেন আদালত।