‘স্বার্থরক্ষা আর পকেট ভারি করতেই বিদ্যুতের দাম বাড়ছে’

0
32
Manobbondon-381

Manobbondon-381সরকার নিজেদের স্বার্থরক্ষা আর পকেট ভারি করার জন্য দফায় দফায় বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ সংযুক্ত শ্রমিক ফেডারেশন, গণসংহতি আন্দোলন, ন্যাপ ভাসানী আয়োজিত ভিন্ন ভিন্ন মানববন্ধনে একই অভিযোগ করেন এসব সংগঠনের নেতারা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সরকার সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ না করে শুধু নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থে কাজ করছে।দেশের সম্পদ মানুষের কল্যাণে ব্যবহার না করে বিদেশিদেরকে বিলিয়ে দিচ্ছে। দেশে উৎপাদন বাড়ার সাথে সাথে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি অযৈাক্তিক বলেও জানান তারা।

তারা বলেন, আবারও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলে গ্রামের কুটির শিল্প ও অর্থনীতি চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কৃষি উৎপাদনের ব্যয় বেড়ে যাবে।

গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি বলেন, সরকার সাম্রাজ্যবাদ ও মার্কিনদের কাছে বাংলাদেশের গ্যাস ও বিদ্যুৎ হস্তান্তরের মাধ্যমে দেশকে ধ্বংস করতে চায়। এখনি তাঁবেদারী সরকারের এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

এ সময় তিনি বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে দেশের মানুষকে সাথে নিয়ে তা প্রতিহত করার আহ্বান জানান। শুধু রাজধানীতেই নয় জেলায় জেলায় আন্দোলন ছড়িয়ে দিতে হবে বলে জানান তিনি।

এসব মানববন্ধনে বক্তব্য দেন- শ্রমিক ফেডারেশনের পক্ষে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন স্বপন, সহ-সভাপতি হারুনুর রশিদ ভুঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক মো: মোকাদ্দেম হোসেন, গণসংহতি আন্দোলনের জুনায়েদ সাকি ও ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির নেতারা।

মানববন্ধন শেষে গণসংহতি আন্দোলনের নেতারা জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সামনে গণবিক্ষোভ করেন।

জেইউ/কেএফ