মনোনয়ন বাণিজ্য নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি রাজশাহী মহানগর ও জেলা বিএনপি

0
26
rajshahi

rajshahiরাজশাহীর উপজেলা নির্বাচনে মনোনয়ন বাণিজ্য নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি হচ্ছে জেলা ও মহানগর নেতাদের মধ্যে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুর বিরুদ্ধে মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগ তুলল জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এ অভিযোগ করেন।

এর আগে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির বিশেষ সম্পাদক ও জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট নাদিম মোস্তফার বিরুদ্ধে বিএনপির একটি অংশ মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করে।

মিনুর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রাজশাহী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাড. মাইনুল আহসান পান্না। এ সময় নাদিম মোস্তফা বিরুদ্ধে আনা মনোনয়ন বাণ্যিজ প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, দুর্গাপুর উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল ওয়াহেদ মোল্লা সংবাদ সম্মেলনে যা বলেছেন তা সবই মিথ্যা। যারা অর্থ বাণিজ্যের কথা বলেছেন তারাই অর্থ বাণিজ্যে লিপ্ত।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তেব্যে বলা হয়, নাদিম মোস্তফা যখন সভাপতির দায়িত্ব নেবার পর দলীয় কার্যক্রমের গতি সঞ্চারিত করেছে ঠিক তখনই বিএনপির একটি স্বার্থান্বেষি মহল নাদিম মোস্তফার চরিত্র হননের জন্য জেলা বিএনপির কতিপয় নেতাকে ইন্ধন যুগিয়ে নানান কল্প-কাহিনি ফলাও করে প্রচার করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, রাজশাহী বিএনপির একজন শীর্ষ নেতা জেলা বিএনপির মতামতকে উপেক্ষা করে উপজেলা প্রার্থী ঘোষণা করেছেন। ওই শীর্ষ নেতার প্রশয়ে কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাড. রুহুল কবির রিজভী আহমেদের নাম জড়িয়ে যারা তার নামে মিথ্যা কলঙ্কের কালি লেপন করছেন তারা শুধু রিজভী আহমেদকে নয় বরং তারা বিএনপিকে কলঙ্কিত করছেন। আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ জানচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জেলা  বিএনপির সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক মামুন-অর-রশিদ, আলাউদ্দিন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত রোববার নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে নাদিম মোস্তফার বিরুদ্ধে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন বাণিজ্যসহ নানান অভিযোগ আনেন দলটির একাংশের নেতাকর্মীরা।

কেএফ