ঘুরে দাঁড়াবে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান খাত

0
72

us airwaysজানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে  যুক্তরাষ্ট্রের বিমান পরিবহন খাতে ধস নেমেছে। দেশটির বিমান পরিবহন সংস্থা ইউনাইটেড জানিয়েছে, ওই সময়ে  প্রবল তুষারপাত এবং তাপমাত্রা কোথাও কোথাও মাইনাসের অনেক নিচে নেমে যাওয়ায় পানির আধারগুলো বরফে পরিণত হয়।  ফলে বাতিল হয়েছে হাজার ফ্লাইট। তারপরেও এই খাতে চলতি বছরে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে কন্টিনেন্টাল, আমেরিকান এয়ারলাইনস ও ডেল্টা ইউ জাংকাং।

বিমান সংস্থাটির বরাত দিয়ে মঙ্গলবার ফিলি ডট কমের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়,  দুই মাসে আমেরিকান এয়ারলাইনস ও ইউএস এয়ারলাইনসের মোট ২৮ হাজার ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৬৪ শতাংশ বেশি। এছাড়া একই সময়ে জেট ব্লু বিমানবন্দর বাতিল করেছে ৩ হাজার ৯০০ টি ফ্লাইট। পাশাপাশি প্রবল তুষারপাতসহ বৃষ্টিপাত এবং শৈত্যপ্রবাহ চলতে থাকায় ইউনাইটেড এয়ারলাইনস বাতিল করেছে ২৩ হাজার ফ্লাইট। এদিকে দুইমাসে ১৭ হাজার ফ্লাইট বাতিল হয়েছে বলে জানায় ডেল্টা এয়ারলাইনস ।

সংস্থাটি বলছে, কেবল  শিকাগো বিমানবন্দর থেকে যেখানে প্রতিদিন প্রায় আড়াই হাজার ফ্লাইট যায়। তুষারপাতের চেয়ে প্রবল ঠান্ডার কারণে সেখানে একদিনে বাতিল করা হয় ১ হাজার ৬০০ ফ্লাইট।

সোমবার নিউইয়র্ক সিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এয়ার লাইন্সের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জানান, যদিও ওই দুইমাসে যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া ছিল অত্যন্ত প্রতিকূল, তারপরেও দেশটির বিভিন্ন বিমান বন্দরে লোকজনের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। তাছাড়া অনেকেই শেষ পর্যন্ত তাদের গন্তব্য স্থলে যেতে না পারায় তাদের যাত্রা বাতিল করে দিয়েছিলেন।

এ সময় তারা বলেন, এখন আর সেই শৈত্য আবহাওয়া নেই । কাজেই ধীরে ধীরে বাড়ছে বিমানে মানুষের যাত্রা। আর আগামি মাসগুলোতে দেশটির বিমান পরিবহন খাত তার লোকসান পুষিয়ে নিয়ে অনেক বেশি মুনাফা অর্জন করতে পারবে বলে আশা করেন তারা।

এস রহমান/