হতাহতদের আর্থিক ক্ষতিপূরণের আশ্বাস মালিক পক্ষের

0
54

Ctg_train_accdentচট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও থানার বাহির সিগন্যাল এলাকায় ট্রেন-মিনিবাস সংঘর্ষে  হতাহতদের আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বেইজ টেক্সটাইল কারখানার সহকারী মহাব্যবস্থাপক বিধান বডূয়া। ঘটনার পর কালুরঘাট এলাকার বিভিন্ন পোশাক কারখানায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে ।

জানা যায়, নিহত সবাই বেইজ টেক্সটাইল পোশাক তৈরী কারখানার কর্মী । মঙ্গলবার সকালে ঘটে যাওয়া এ দূর্ঘটনায় দুটি বিভাগী তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল কর্তৃপক্ষ।

বেইজ টেক্সটাইল কারখানার সহকারী মহাব্যবস্থাপক বিধান বডূয়া অর্থসূচককে বলেন, দূর্ঘটনায় হতাহত সকলকে কারখানার পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা করা যাবে।আহতদের চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে । তাদের সব ধরনের চিকিৎসার খরচ বহন করা হবে বলেও তিনি জানান।

গেইটকিপার ও কোন গেইট না থাকায় ট্রেন আসার বিষয়ে অবগত না থাকায় এমন দূর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানান দূর্ঘটনার পর আটক হওয়া মিনিবাস চালক দিদাদুল আলম ।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার এস এম মুরাদ হোসেন অর্থসূচককে জানান, বাহির সিগন্যাল এলাকার এ জায়গাটিতে অবৈধভাবে স্থানীয়রা রাস্তা করায় কোন ধরনের গেইট কিংবা সিগনালের ব্যবস্থা রাখা হয়নি।

ঘটনার পর কালুরঘাট শিল্প এলাকার বিভিন্ন কারখানায় শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে স্মার্ট জিন্স ও ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্রেন্ডস  নামে দুটি কারখানা ভাংচুর চালায় শ্রমিকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি বেইজ টেক্সটাইলসহ অধিকাংশ পোশাক কারখানা ছুটি দেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রামের শিল্প পুলিশের গোয়েন্দা শাখার পরিদর্শক আরিফুর রহমান বলেন, দূর্ঘটনার পর বিভিন্ন কারখানার শ্রমিকরা ভাংচুর করে। ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। কারখানা ছুটি দেওয়ার পাশাপাশি  অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।