রেলওয়ের শূন্য পদে শ্রমিক কর্মচারির সন্তানদের নিয়োগের দাবি

0
40

BD_railwayরেলওয়েতে পোষ্য কোটায় আনুপাতিক হারে শুন্য পদে শ্রমিক কর্মচারির সন্তানদের যোগ্যতা অনুসারে নিয়োগের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিক কর্মচারি পোষ্য পরিষদ। সেই সঙ্গে নিয়োগের ক্ষেত্রে পোষ্যদের বয়স ৩০ এর স্থলে ৩৫ বছর করার দাবিও জানানো হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে তোপখানা রোডে সংগঠনটির প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের বিধান অনুযায়ী শ্রমিক কর্মচারির সন্তানদের যোগ্যতা অনুসারে নিয়োগের  কথা ছিলো। তবে সেটা না করে ওই পদে অন্যদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে টাকার বিনিময়ে। ফলে রেল শ্রমিকদের সন্তানেরা এই অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।

তিনি বলেন, রেলওয়েতে ব্রিটিশ-ভারতকালীন সময়ে অবসর প্রাপ্ত শ্রমিক পরিবারের একজন পোষ্য হিসেবে বাধ্যতামূলক চাকুরি পাওয়ার বিধান ছিলো। তবে বাংলাদেশ সেই নিয়ম বাতিল করে পোষ্য কোঠা ৪০ শতাংশ করেছে। এই ৪০ শতাংশের মধ্যে দূর্নীতি করার কারণে প্রকৃত শ্রমিকদের সন্তানরা চাকুরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। আর এই নিয়োগে ৫ থেকে ৬ শতাংশ শ্রমিক সন্তানরা চাকুরি পাচ্ছে  বলে দাবি করেন তিনি।

তিনি ৫ থেকে ৭ লাখ টাকার বিনিময়ে পোষ্যদের কোঠা অন্যদের মাধ্যমে পূরণ করা হচ্ছে। অসহায় শ্রমিক কর্মচারিদের সন্তানরা অর্থের বিনিময়ে চাকুরি পাওয়া অসম্ভব। কারণ অবিভাবকদের বেতনের দ্বারা সংসার চালাতে কষ্ট হয় বলে জানান তিনি।

জানা যায় বাংলাদেশ রেলওয়েতে এখন ২৩ হাজার ৭০০ শুন্য পদ রয়েছে। যেখানে ৪০ শতাংশ রেলওয়ে অবসরপ্রাপ্ত ও কর্মরত শ্রমিক কর্মচারির পোষ্যদের আনুপাতিক হারে স্থায়ী শুন্য পদে চাকরি পাওয়ার কথা।তবে অনিয়ম করে এই পদে নিয়োগ হওয়ায় বঞ্চিত হচ্ছে তাদের সন্তানেরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দাবি পূরণে সংগঠনটি ২৪ মার্চ ২০১৪ রেলওয়ে মহাপরিচালকের নিকট স্মারকলিপি পেশ, ২ এপ্রিল দাবি সপ্তাহ পালন, ৯ এপ্রিল রেলওয়ের বিভাগীয় কর্মকর্তার দপ্তরের সামনে অবস্তান ধর্মঘট, ৫ মে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানব বন্ধন কর্মসূচি দেওয়ার কথা বলেন।