পানৌট দিয়ে পণ্য আনা-নেওয়া শুরু
রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পণ্যবাজার

পানৌট দিয়ে পণ্য আনা-নেওয়া শুরু

pangaonকেরানীগঞ্জের পানগাঁও নৌ টার্মিনাল (পানৌট) বন্দর দিয়ে পোশাক শিল্পের মালামাল ওঠানামা শুরু হচ্ছে আজ থেকে। ফলে অবরোধের মধ্যেও ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে পোশাক পরিবহন আরও সহজ হয়েছে বলে অর্থসূচককে নিশ্চিত করেছেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ আজীম।

তবে শিগগিরই পুরোদমে এই বন্দরের কার্যক্রম সুবিধা পেতে চায় বিজিএমইএ। সংগঠনটি মনে করছে, বন্দরটি চালু পুরোদমে চালু হলে হরতাল-অবরোধে পণ্য পরিবহন সহজ হবে। ১৪ থেকে ১৫ ঘন্টার মধ্যে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে পৌঁছাতে পারবে। এছাড়া পরিবহন ব্যয় অনেক কমবে বলেও মনে করছেন সংগঠনটি।

আর তেমন হলে বর্তমানে বিদেশি ক্রেতাদের যে সব অর্ডার দেশের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ভারতসহ অন্যান্য দেশে চলে যাচ্ছে তা আবার ফিরে পাওয়া সম্ভব বলে মনে করে সংগঠনটির অনেক নেতা।

পণ্য পরিবহণের বিষয়ে শহিদুল্লাহ আজীম জানান, চট্টগ্রাম থেকে আজই কন্টেইনার বোঝাই ১টি জাহাজ আসবে। চায়না থেকে ১২৮টি কন্টেইনার বোঝাই করে ২টি জাহাজ চট্টগ্রাম বন্দরে রয়েছে।

যার প্রতিটি কন্টেইনার পানগাঁও হয়ে ঢাকা আসতে খরচ পড়বে ১৫০ ডলার কিংবা সাড়ে ১১ হাজার টাকা। তবে অবরোধ-হরতালে এর পরিমাণ ৩৫ হাজার থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ হচ্ছে। আর স্বাভাবিক সময়ে ১৬ থেকে ১৮ হাজার টাকা খরচ হতো বলে জানান তিনি।

গত শনিবার বিজিএমইএর পক্ষ থেকে সংগঠনটির সদস্যদের কাছে পানগাঁও এর মাধ্যমে পণ্য ওঠানামার কথা জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে গত ৭ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কেরানীগঞ্জের পানগাঁও নৌ-টার্মিনালের উদ্বোধন করেন। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সরকারিভাবে ৯টি ও বেসরকারি ৩২টি মোট ৪২ জাহাজের অনুমতি দেওয়া হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বন্দরের ৩টি, নৌবাহিনীর ২টি, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের(বিআইডব্লিউটিএ)৪টি জাহাজ থাকছে।

এদিকে কারখানা মালিকেরা বলছেন, বন্দরে এখনো পরিকাঠামোগত উন্নতি হয়নি। কাস্টমস হাউজের ব্যবস্থা পর্যাপ্ততা পায়নি বলেও দাবি তাদের।

শহীদুল্লাহ আজীম আরও জানান, কারখানা থেকে পানগাঁও পৌঁছানোর ক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়ে মহানগরী ও সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হবে। তাছাড়া পণ্য ওঠানামার কাজ শুরু হলে মালিকেরা এই পথে আরও বেশি আগ্রহী হবে বলে মনে করেন তিনি।

এদিকে চট্টগ্রাম বন্দর সচিব সৈয়দ ফরহাদ উদ্দীন আহমেদ অর্থসূচককে জানান,পানগাঁয়ে জাহাজ পাঠানোর জন্য আমরা প্রস্তুত আছি। তবে গত তিন-চার দিনে ৫ হাজার কন্টেইনার চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় পৌছানোর কারণে নতুন কারগো মিলছে না। কারগোর ব্যবস্থা করতে পারলে আজই জাহাজ পাঠানোর ব্যবস্থা করতে পারবেন বলে মনে করেন তিনি।

চট্টগ্রামের বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ অঞ্জন শেখর জানান, ১৮টি কাঁচামাল বোঝাই কিছু খালি কন্টেইনার নিয়ে ১টি জাহাজ চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পানগাঁয়ের উদ্দ্যেশে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ