পালিয়ে বিয়ে করলেন রাহাত ফতেহ আলী

fateh_aliকাওয়ালী,উর্দু গজলের সম্রাট বলা হয় নুসরাত ফতেহ আলী খানকে । তিনি চলে গেছেন আরও আগে। তার সেই শুন্যস্থান আর কেউই পূরণ করেত পারবে না। কিন্তু তার ভাইপো রাহাত ফতেহ আলী তেমন এক সম্ভাবনার দীপ জ্বেলে ছিলেন। চাচার মতোই রাহাত খানের আধুনিক গানগুলোতেও কাওয়ালী ভাব পাওয়া যায় আর এই দুইয়ের সমন্বয়ে তৈরি হয় এক অসাধারণ সুর।

১৯৭৪ সালে পাকিস্তানে জন্মগ্রহন করা এই প্রতিভা চাচার নিবিড় পর্যবেক্ষণে গান শিখতে শুরু করেন। তার বয়স যখন মাত্র ১০ বছর তখন চাচার সাথে ইংল্যান্ডের এক প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করেন । আর ১৯৯৭ সালে চাচা মারা যা্ওয়ার পর তিনি দলের হাল ধরেন । কিন্তু ২০০৪ সালে বলিউডের পাপ সিনেমার লগে তুমসে মন লাগে গানের মধ্য দিয়ে অভিষেক হবার পর তার জনপ্রিয়তা আরও ছড়িয়ে যায়।বলিউডে পাকাপোক্ত হয় তার আসন। কিন্তু এর পর ভিসা সমস্যার কারণে ভারতে বেশ বিড়ম্বনার মধ্যে পড়তে হয়।

এ ইতিহাস আমাদের বেশির ভাগেরই জানা। তার স্ত্রী নিদার কথাও আমাদের জানা। তার গানের মডেল ফালাককেও অনেকে চেনেন জানেন। কিন্তু যে কথাটি অনেকেই জানি না সেটা হচ্ছে নিদাকে তালাক দিয়েছেন রাহাত ফতেহ আলী। আর পালিয়ে বিয়ে করেছেন ফালাককে। তবে গোপনীয়তা বজায় রাখতে চাইলেও পারেননি। তারই এক বেতার উপস্থাপক বন্ধু ফাস করে দিয়েছের এই বিয়ের কথা। একটি ওয়েব সাইটে তিনি এ কথা প্রচার করে তাদের জন্য শুভকামনাও জানিয়েছেন।