গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনে আমিরাতের সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ

0
29
Amu_UEA

Amu_UEAগভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপন, নিউমুরিং কন্টেইনার টার্মিনাল নির্মাণ, মংলা সমুদ্র বন্দরের আধুনিকায়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সহায়তা চেয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

এ প্রসঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ড. সাঈদ বিন হাজর আল-শেহি শিল্পমনত্রীকে জানান, বাংলাদেশের সড়ক, সমুদ্রবন্দরসহ যোগাযোগ অবকাঠামোর উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনায় তার সরকারের সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

রোববার বেলা সাড়ে ১২টায় রাজধানীর মতিঝিলের শিল্প মন্ত্রণালয়ে শিল্পমন্ত্রীর সাথে আলাপকালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত এ আশ্বাস দেন।

এর আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার চান হ্যাং উইং শিল্পমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। বাংলাদেশের শিল্পখাতে বিনিয়োগ এবং দ্বিপাক্ষিক সহায়তার বিভিন্ন দিক নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়। এ সময় বাংলাদেশে সাবমেরিন ক্যাবলস স্থাপন, টেলিকমিউনিকেশন, জাহাজভাঙ্গা ও জাহাজ নির্মাণ, পরিবেশবান্ধব তৈরি পোশাক এবং নির্মাণ শিল্পখাতে সহায়তার বিষয়ে বিশেষভাবে আলোচনায় স্থান পায়।

শিল্পমন্ত্রী দুদেশের রাষ্ট্রদূতের কাছে বাংলাদেশ থেকে কৃষিপণ্য আমদানির পাশাপাশি এদেশে কৃষিভিত্তিক শিল্প স্থাপনসহ বিভিন্নখাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান এবং দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য তাদের সহায়তা হাত বাড়াতে আহ্বান জানান।

শিল্পমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎকালে সিঙ্গাপুরের হাই কমিশনার চান হ্যাং উইং বাংলাদেশি  জনবলের দক্ষতার প্রশংসা করে বলেন, গত দু’বছরে সিঙ্গাপুরে কর্মরত বাংলাদেশি জনবলের সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজার থেকে বেড়ে ১ লাখ ৬০ হাজারে দাঁড়িয়েছে। তিনি বাংলাদেশ থেকে জনশক্তি আমদানির জন্য শিল্পমন্ত্রীর প্রস্তাব সিঙ্গাপুর সরকারের কাছে তুলে ধরবেন বলে জানান। বাংলাদেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে একটি ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি খাতের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে কর্মশালা আয়োজনের প্রস্তাব করেন।

তার প্রস্তাবকে  স্বাগত জানিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের জ্বালানি ও খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পে সিঙ্গাপুরের উদ্যোক্তারা বিনিয়োগ করতে পারে। আয়তনে ছোট হলেও নগর উন্নয়ন এবং সমৃদ্ধ অর্থনীতি গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সিঙ্গাপুরের অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের জন্য ফলপ্রসূ হতে পারে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূতের সাথে বৈঠককালে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয় চুক্তির আওতায় প্রতিবছর সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ২ লাখ মেট্রিক টন ইউরিয়া সার আমদানি করছে। তিনি এর পরিমাণ বাড়ানোর জন্য রাষ্ট্রদূতের প্রতি আহ্বান জানান।

এমআর/ এআর