বিদেশিদের সম্মাননায় মুক্তিযুদ্ধকে পরিহাস করছে বিএনপি

0
104
hasan Mahmud
হাছান মাহমুদ
hansan Mahmud
হাছান মাহমুদ

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও সাবেক বনমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধে সহায়তা করার জন্য বিদেশি বন্ধুদের সম্মাননা দেওয়া মুক্তিযুদ্ধকে পরিহাস করা ছাড়া কিছুই নয়।

রোববার রাজধানীর একটি অডিটোরিয়ামে ৭ মার্চের ভাষণ ও চলমান রাজনীতি বিষয়ক আলোচনা সভায় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি এ কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, “যারা স্বাধীনতা বিরোধীদের সাথে নিয়ে রাজনীতি করে, তারা যদি মুক্তিযুদ্ধে সহায়তা করার জন্যে বিদেশি বন্ধুদের সম্মাননা দেয় তা মুক্তিযুদ্ধকে পরিহাস ছাড়া আর কিছুই নয়। এটা না করে জামায়াতের সঙ্গ ছাড়লেই বরং বাংলার মানুষ বেশি খুশি হবে”।

মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে তিনি বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগকে আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হাজার বছরের ঘুমন্ত মানুষকে হ্যামিলনের বাসিওয়ালার মতো জাগ্রত করেছিলেন। পৃথিবীর ইতিহাসে আর কোনো নেতা জাতির রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্যে এ ধরনের কথা বলতে পারেননি।

শেখ মুজিব যদি আপোষ করতেন তাহলে সমগ্র পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন। কিন্তু তিনি মূলত চেয়েছিলেন মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে। তেমনিভাবে আপোষহীন নেতা শেখ হাসিনার কারণে অস্তিত্ব সংকটের সম্ভাবনা সত্ত্বেও ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসেছে।

উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রশাসনকে ব্যবহার করছে-মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “উপজেলা নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে বলেই বেশকিছু উপজেলায় বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্রার্থীরা জয়ী হয়েছে। আওয়ামী লীগ প্রশাসনকে ব্যবহার করলে ২০ উপজেলায়ও তারা জয়ী হতো না।

বিশেষ অতিথি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক বলেন, “৭ মার্চ একটি নিরস্ত্র জাতিকে সশস্ত্র বিপ্লবের ডাক দিয়েছিলেন শেখ মুজিব। সাথে সাথে অর্থনৈতিক মুক্তির রূপরেখাও তুলে ধরেছিলেন তিনি”।

বঙ্গবন্ধুর ভাষণকে সংবিধানে সন্নিবেশিত করার কথা বলেন মন্ত্রী।

শুধু দিবস পালন না করে বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক ও বৈষম্যহীন স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাইকে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস, বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ব্যারিস্টার জাকির আহমেদ প্রমুখ।

এসএসআর