ওয়ার্ল্ড কাপের টিকেটে ভ্যাট মওকুফ চায় বিসিবি

0
77

World_Cup_NBRআইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপ টি-টুয়েন্টি ২০১৪ এর টিকিট বিক্রির আয়ের ওপর আরোপিত ১৫ শতাংশ মূ্ল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট মওকুফ চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এ  বিষয়ে খোদ প্রধানমন্ত্রীরও সুপারিশ রয়েছে। সম্প্রতি বিসিবি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাছে ভ্যাট মওকুফ চেয়ে আবেদন  করেছে।

বিসিবির আবেদন সূত্রে জানা যায়, দেশের ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে সকল ধরনের সুবিধা দিচ্ছে সরকার। এ লক্ষ্যে আগামি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের টিকেট বিক্রির আয়ের সম্পূর্ণ অর্থ যেন ক্রিকেট বোর্ড পায় সে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করে টিকেট বিক্রির ওপর ভ্যাট মওকুফের অনুরোধ করে বিসিবি। প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি বিবেচনা করে বিসিবির সাথে সম্মতি দিয়েছে। এখন এনবিআর অনুমোদন দিলেই হয়।

এ বিষয়ে এনবিআরের সংশ্লিষ্ট বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, আমরা এ সংক্রান্ত একটি আবেদন পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে বোর্ড সভায় আলোচনা শেষে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এনবিআর ইতোমধ্যেই ক্রিকেটের সকল সামগ্রী আমদানি ও বিক্রির উপর সকল ধরনের কর মওকুফ করেছে বলেও জানান তিনি।

এনবিআর সূত্র জানায়, আগামি ২০১৪ সালের ১৭ মার্চ থেকে বি্শ্বকাপ টি-২০ খেলা শুরু হবে। টুর্নামেন্টের এবারের আয়োজক বাংলাদেশ। বাংলাদেশের বিভিন্ন ভেন্যুতে আয়োজিত টুনার্মেন্টের ম্যাচ দেখতে টিকিটের স্বত্ব কিনেছে অগ্রণী এবং এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড। তারা ইতোমধ্যে টিকিট বিক্রি শুরু করে দিয়েছে। প্রতি ম্যাচের টিকিট বিক্রি থেকেই আয় করা হচ্ছে বিরাট অংকের টাকা। খেলাধুলা আন্তর্জাতিকভাবে সেবা খাত হিসেবে পরিগণিত হওয়ায় বাংলাদেশের রাজস্ব আদায়ের এসআরও-১৬৮- আইন ২০১৩/৬৭২ ধারা মোতাবেক সেবা খাতের আযের ওপর ১৫ শতাংশ রাজস্ব বোর্ডকে মূ্ল্য সংযোজন কর দিতে হয়। তাই বিক্রিত টিকেটের উপর কর প্রদান করতে ব্যাংক দুটিকে চিঠি দেয় এনবিআর। আর এনবিআরের চিঠির পরই ভ্যাট মওকুফের আবেদন করে বিসিবি।

প্রসঙ্গত, আইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপ টি-টোয়েন্টি ২০১৪ চলতি মার্চ মাসের ১৬ তারিখ থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। এ টুনার্মেন্টের প্রতি ম্যাচে টিকিটের সর্বনিম্ন মূল্য ৫০ টাকা। সর্বোচ্চ মূল্য ৪০০০ টাকা। ফাইনালের টিকিটের সর্বনিম্ন মূল্য ২০০ টাকা। সর্বোচ্চ টিকিটের মূল্য ধরা হয়েছে ৪০০০ টাকা।