গণতন্ত্র রক্ষায় হাসিনার বিদায়ের বিকল্প নেই: রুহুল আমিন
শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » রাজনীতি

গণতন্ত্র রক্ষায় হাসিনার বিদায়ের বিকল্প নেই: রুহুল আমিন

Ruhul-Amin-Gazi

রুহুল আমিন গাজী

দেশের চলমান সংকটের সমাধান ও গণতন্ত্র রক্ষা করতে হলে শেখ হাসিনাকে বিদায় করা ছাড়া আর কোনো বিকল্প পথ নেই। তাই তাকে দেশ থেকে বিদায় করতে হবে বলে জানালেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি রুহুল আমিন গাজী।

রোববার দুপুর ২টায় জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে নিদর্লীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরামে আয়োজিত পেশাজীবী সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

রুহুল আমিন গাজী বলেন, নিদর্লীয় তত্ত্বাধায়ক সরকার এখন দেশের ৯৮ ভাগ মানুষের দাবি। এমন কি আওয়ামী লীগের ৬৮ ভাগ মানুষও তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। চায় না শুধু শেখ হাসিনা। যাকে আদালত রং হেডেড বলেছেন। তার একটি কানও বন্ধ রয়েছে।

সাংবাদিক নেতা গাজী আরও বলেন, গণতন্ত্র, ন্যায়বিচারের শক্র শেখ হাসিনা। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের জন্য আন্দোলন করতে গিয়ে ৯৬ সালে শাহবাগে তারা বাসে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করেছিল। গত কয়েকমাসে ৫’শ মানুষকে হত্যা করেছে। মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। গুম করা হয়েছে অনেককে। দেশকে একটি কয়েদখানা বানিয়েছে সরকার। অথচ কিছু মিডিয়া টকশোতে নিরপেক্ষ সেজে কথা বলছেন তারা। আবার বার্ণ ইউনিট নিয়ে রিপোর্ট করে।

যুদ্ধাপরাধ বিচারের নামে একটি বিচারবিহীন ব্যবস্থার সৃষ্টি করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে কারাগারে নির্যাতন করা হচ্ছে। গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও ন্যায়বিচারের পক্ষে যারাই কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও নির্যাতন চালাচ্ছে সরকার।

এ সময় তিনি বলেন, এখন আমাদের এক দফা এক দাবি শেখ হাসিনা এখনই যাবি। হাসিনার বিদায়ের মধ্য দিয়ে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। তার বিদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে শওকত মাহমুদ বলেন, খুব শিগগিরই শেখ হাসিনা পদত্যাগ করতে বাধ্য হবেন। পেশাজীবীদের আন্দোলনেই তাকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হবে।

ইসলাম বিদ্বেষী সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে আসা ফরজ হয়ে গেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, অত্যাচারী সরকারের পতন এখন অতি জরুরী। আমাদের আন্দোলন শুধু তত্ত্বাবধায়কের দাবিতে নয়, ভারতের হাত থেকে দেশকে বাঁচানোর দাবিতেও এ আন্দোলন।

তিনি সবাইকে আন্দোলনে শরিক হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, রাস্তায় নেমে আসুন। আপনারা আসলে শেখ হাসিনাকে কেউ রক্ষা করতে পারবে না। ভারতও তাদের রক্ষা করতে পারবে না। জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে ভারত ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ রকম ভুল তারা এর আগে আর করে নি।

আব্দুল হাই শিকদার বলেন, শেখ হাসিনা তার ব্যক্তিগত অভিলাষ পূরণে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করেছে। এ কারণে দেশে বর্তমান সংকটের সৃষ্টি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, সরকারের ক্ষমতার খায়েশের কারণে স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব নস্যাৎ হতে চলেছে। সারাবিশ্ব তার পদত্যাগ দাবি করলেও তিনি সরতে চাননা। এজন্য তাকে আন্দোলনের মাধ্যমে দেশ থেকে বিতাড়িত করতে হবে।

সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরামের সভাপতি সাবেক সচিব আ.ফ.ম সোলায়মান চৌধুরীর সভাপতিত্বে  আয়োজিত ফোরামে বক্তব্য রাখেন, বিএফইউজে মহাসচিব শওকত মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার,  বিএসএমএমইউ এর সাবেক প্রো-ভিসি ও ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. আব্দুল মান্নান, বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিভার্সিটির সাবেক ভিসি ও আদর্শ শিক্ষক ফেডারেশনের সভাপতি প্রফেসর ড. কুরবান আলী, ডিইউজে সাধারণ-সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, কণ্ঠশিল্পী মনির খান প্রমুখ।

জেইউ/এএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ