অধিকাংশ এসিড সন্ত্রাসীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে

0
61

Acid_throwএসিড অপরাধ দমনে ট্রাইব্যুনাল ও বিশেষ কমিটি থাকা সত্বেও এসিড সহিংসতা রোধ করা যাচ্ছে না। অল্পসংখ্যক সন্ত্রাসী ধরা পড়লেও বেশির ভাগই ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্ট শ্রমিক ইউনিয়ন ফেডারেশন (বিগফ) ও তারাটেক (বিডি) লিমিটেড শ্রমিক ইউনিয়ন এবং বেসরকারি সংস্থা এসিড সারভাইভারস ফাউন্ডেশন এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এসিড সারভাইভারস ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সেলিনা আহম্মেদ বলেন, ২০০২ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত এসিড সন্ত্রাসের ঘটনায় সারা দেশে মামলা হয়েছে এক হাজার ৮৯১টি। অভিযুক্তদের সংখ্যা চারহাজার ৯২৬ জন। অথচ গ্রেপ্তার হয়েছে মাত্র ৫৯০ জন।

তিনি বলেন, নারীদের অধিকার বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন আইন হলেও আজও তা বাস্তবায়ন হয়নি। নারী কর্মীরা নিয়মিত হয়রানী, নির্যাতনের স্বীকার হচ্ছে। জাতীয় অর্থনীতিতে নারীরা অগ্রণী ভূমিকা রাখলেও তাদের অবহেলা করা হচ্ছে। নারীদের প্রতি বৈষম্য প্রকাশ করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত।নারীদের বেতন ভাতা নিয়ে সবসময় তাদের উৎকণ্ঠায় থাকতে হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিগফের সহসভাপতি মনিরুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল আলম, দপ্তর সম্পাদক সানজিদা সুলতানা, তারাটেক (বিডি) লিমিটেডের শ্রমিক ইউনিয়ন (প্রস্তাবিত) সভাপতি স্মৃতি আকতার, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন, সহসাধারণ সম্পাদক সুমন মিয়া, কাদির মিয়া, অর্থ সম্পাদক পিন্টু মিয়া প্রমুখ।

জেইউ/