সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে কমেছে সূচক ও লেনদেন

0
53
dse_2
সূচক-নিম্নমুখী

dse_2ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এক সপ্তাহের ব্যবধানে সূচক ও লেনদেন কমেছে।  ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৮ দশমিক ৮৯ শতাংশ।  আগের সপ্তাহের চেয়ে গত সপ্তাহে ডিএসইএক্স এবং ডিএস৩০ সূচক কমেছে। তবে  বেড়েছে ডিএসই শরীয়াহ সূচক  ।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, গত সপ্তাহে ১৫ কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে । এর মধ্যে ব্যাংক ও কোম্পানি গুলো ভালো মুনাফাও করেছে। তারপরেও বাজারে বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতন হয়েছে। বিনিয়াগকারীদের আস্থাহীনতার কারণেই কম মূল্যেই শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। এতে সার্বিক বাজারে একটা প্রভাব পড়েছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২২৫ কোটি টাকার। গত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৩১০ কোটি ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ৫৬০ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল দুই হাজার ৫৩৫ কোটি  ৭৩ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩৭ টাকা।

এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন ছিল ৯০ দশমিক ৭১ শতাংশ, ‘বি’ ক্যটাগরির লেনদেন ছিল ২ দশমিক ৫০ শতাংশ, ‘এন’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ১ দশমিক ৭১ শতাংশ এবং ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ৫ দশমিক ০৮ শতাংশ।

ডিএসই প্রধান সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে এক দশমিক ৬ শতাংশ বা ৫০ দশমিক ২৪ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে এই সূচক ৪ হাজার ৭৪৯ পয়েন্ট থেকে নেমে ৪ হাজার ৬৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করে।

গত সপ্তাহে ডিএস৩০ সূচক কমেছে ২২ শতাংশ বা ৩ দশমিক ৭৯ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল ১ হাজার ৬৯৩ পয়েন্টে। আর সপ্তাহের শেষ দিনে এই সূচক অবস্থান করে ১ হাজার ৬৯০ পয়েন্টে।

অপরদিকে শরীয়াহ সূচক বেড়েছে দশমিক ৮৯ শতাংশ বা ৮ দশমিক ৯৪ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল এক হাজার ২ পয়েন্ট। আর সপ্তাহের শেষে এই সূচক দাঁড়ায় ১ হাজার ১১পয়েন্টে।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডর শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৫টির কমেছে ২১৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির। আর লেনদেন হয়নি ৩টি কোম্পানির।

এসএ/এমআরবি/