‘পানিসম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহারের বিকল্প নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
63
Anisul Islam Mahmud
রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের সেমিনার রুমে আজ রোববার বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত প্রকৌশলী সমিতি আয়োজিত ‘বাংলাদেশের নদ-নদীতে ড্রেজিং’ শীর্ষক সেমিনারে পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

নদীমাতৃক বাংলাদেশের কৃষি প্রধান আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে পানিসম্পদ সুষ্ঠু ব্যবহারের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। তিনি বলেন, পরিবেশ প্রকৃতিকে বাঁচাতে এবং নদীর নাব্যতা রক্ষা ও গতিপথ ঠিক রাখার জন্য ড্রেজিং কার্যক্রম চালু রাখার পাশাপাশি সব নদী দখলমুক্ত করতে হবে।

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের সেমিনার রুমে আজ রোববার বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত প্রকৌশলী সমিতি আয়োজিত ‘বাংলাদেশের নদ-নদীতে ড্রেজিং’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ড্রেজিং কার্যক্রমের জন্য আমাদের সক্ষমতা আরও বাড়াতে হবে। ড্রেজিং বিভাগকে পুনর্গঠন করতে হবে। ড্রেজিংয়ের জন্য সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা প্রণয়ন এবং বড় নদ-নদী, উপকূলীয় এবং অন্যান্য নদ-নদীর জন্য পৃথক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে।

Anisul Islam Mahmud
রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের সেমিনার রুমে আজ রোববার বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত প্রকৌশলী সমিতি আয়োজিত ‘বাংলাদেশের নদ-নদীতে ড্রেজিং’ শীর্ষক সেমিনারে পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

পানিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, নদীর গতি প্রকৃতি ও প্রবাহ ঠিক রাখা; নদী ভাঙন রোধ, জলাবদ্ধতা নিরসন এবং সুষ্ঠু পানি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে দেশের সম্পদ রক্ষায় পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় নিরবচ্ছিন্নভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

নদী ড্রেজিংয়ের পাশাপাশি সেগুলোকে দখলমুক্ত রাখতে সর্বাধিক জোর দিয়ে তিনি বলেন, নদীগুলো না থাকলে দেশের পরিবেশ-প্রকৃতি ভালো থাকবে না। মানুষের স্বাভাবিক গতি প্রকৃতি মারাত্মক হুঁমকির মধ্যে পড়বে। নদীর নাব্যতা রক্ষা ও পানি প্রবাহ ঠিক রাখার জন্য বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এর ধারাবাহিকতায় নদীর পানি অপসারণ এবং নদীর গতিপথ সুনির্দিষ্ট রাখার জন্য ড্রেজিং প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, অবসরপ্রাপ্ত প্রকৌশলীরা বন্যা, জলোচ্ছ্বাস, ভাঙনরোধ, পানি ও সেচ ব্যবস্থার সঙ্গে সুদীর্ঘ কর্মকাল অতিক্রম করে অবসরে গেছেন। মতবিনিময়ের মাধ্যমে তাদের জ্ঞান, প্রজ্ঞা ও অভিজ্ঞতা বর্তমান প্রজন্মের প্রকৌশলীদের প্রচেষ্টাকে আরও ফলপ্রসূ করবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত প্রকৌশলী সমিতির সহ-সভাপতি খালেদা শাহরিয়ার কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর কবীর। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পাউবোর সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. আবদুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া।

অর্থসূচক/এমই/