শিল্পী গফুর হালী আর নেই

প্রতিনিধি

0
141
gafur-hali-2
চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের কিংবদন্তি শিল্পী, গীতিকার ও সুরকার আবদুল গফুর হালী। ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের কিংবদন্তি শিল্পী, গীতিকার ও সুরকার আবদুল গফুর হালী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি … রাজেউন)। আজ বুধবার সকাল ভোর ৬ টার দিকে নগরীর সার্সন রোডে মাউন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

gafur-hali
চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাইজভান্ডারি শিল্পী আবদুল গফুর হালী।

নগরীর নাসিরাবাদ হাউসিং সোসাইটির পিএইচপি হাউজে শিল্পী গফুর হালীর মরদেহ রাখা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বাদ যোহর ফটিকছড়ি উপজেলার মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফ প্রাঙ্গণে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। একইদিন বাদ মাগরিব জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদের প্রাঙ্গণে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা হবে।

এরপর এ মাইজভাণ্ডারি আবদুল গফুর হালীর মরদেহ তার নিজ বাড়ি পটিয়ার রশিদাবাদ গ্রামে নেওয়া হবে। আগামী শুক্রবার বাদ জুমা সেখানে তার তৃতীয় ও শেষ নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর এ শিল্পীকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

আবদুল গফুর হালীর বয়স হয়েছির ৮৮ বছর। বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে গত দুই মাস ধরে হাসপাতালে শয্যাশায়ী ছিলেন তিনি।

প্রায় ৬০ বছর ধরে একটানা গান লিখেছেন গফুর হালী। শেফালী ঘোষ, সন্দীপন, শিরিনসহ অনেক শিল্পীর উত্থান গফুর হালীর গান গেয়ে। শেফালী ঘোষের গাওয়া ‘ও শ্যাম রেঙ্গুম নঅ যাইওরে’, সন্দীপনের কণ্ঠে ‘সোনাবন্ধু তুই আমারে করলিরে দিওয়ানা’, শিরিনের কণ্ঠে ‘পাঞ্জাবিওয়ালা’ ও ‘মনের বাগানে ফুটিল ফুলরে’ এবং কল্যাণী ঘোষের গাওয়া ‘দেখে যারে মাইজভাণ্ডারে হইতেছে নুরের খেলা’- এমন অসংখ্য কালজয়ী গানের স্রষ্টা আবদুল গফুর হালী।

gafur-hali-1
চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের কিংবদন্তি শিল্পী, গীতিকার ও সুরকার আবদুল গফুর হালী। ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের সম্রাজ্ঞী হিসেবে পরিচিত শিল্পী শেফালী ঘোষের সঙ্গীতগুরু ছিলেন আবদুল গফুর হালী। তার লেখা ও সুর করা গান নিয়ে জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গবেষণাগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের সভাপতি ও আবৃত্তি শিল্পী রাশেদ হাসান অর্থসূচককে বলেন, চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের কিংবদন্তি ছিলেন আবদুল গফুর হালী। আবদুল গফুর হালীর প্রথাগত ও পুঁথিগত বিদ্যা ছিল সামান্যই, কিন্তু শুধু সংগীত-সাধনার মধ্য দিয়ে তিনি অসামান্য জ্ঞানের অধিকারী হয়েছেন। চাটগাঁইয়া সংস্কৃতির বিনির্মাণে আবদুল গফুর হালী অগ্রনায়ক। একজন গণশিল্পী হিসাবে তিনি সক্রিয় ছিলেন আমাদের স্বাধীকারের আন্দোলনেও। তার মৃত্যুতে সংগীত জগতের অভিভাবককে হারালাম আমরা।

অর্থসূচক/দেবব্রত/এমই/