স্ট্যান্ডার্ড ও ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্সকে জরিমানা করলো আইডিআরএ

0
27

Eastern_spkrpq[wসম্পূর্ণ বাকিতে ব্যবসা, ট্যারিফ রেট লঙ্ঘন ও নগদ লেনদেনের কারণে স্ট্যান্ডার্ড ও ইস্টার্ন ইন্সুরেন্সকে জরিমানা করেছে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। একই সময় প্রভাতি ইন্সুরেন্সের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্রাঞ্চ ম্যানেজার কে সতর্ক করেছে সংস্থটি।

কোম্পানিগুলোর কয়েকটি শাখা পরিদর্শণ করে আইডিআরএ প্রতিনিধি দল। পরিদর্শনেকালে কিছু অনিয়ম ধরা পরে। পরিদর্শক দলের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সোমবার আইডিআরএ কার্যালয়ে শুনানীতে ডাকা হয় কোম্পানিগুলোর প্রতিনিধিদেরকে। শুনানী শেষে দুটি কোম্পানিকে জরিমানা করে আইডিআরএ। একটি কোম্পানিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়। শুনানিতে অংশ নেওয়া কোম্পানিগুলো হলো, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড, ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড ও প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। আইডিআরএ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে,শুনানীতে অংশ নেন আইডিআরএ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. ফজলুল করিম, সদস্য মো. কুদ্দুস খান, সিআরসি’র সিনিয়ির কনসালট্যান্ট এ. কে. এম. ইফতেখার আহমদ এবং সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলোর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এদিকে, গত বছরের ৪ আগস্ট স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের প্রধান কার্যালয় পরিদর্শন করে আইডিআরএ পরিদর্শক দল। পরিদর্শনকালে রশিদ, ব্যাংক ডিপোজিট স্লিপ, পলিসি কাভার নোট এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট পরীক্ষা করে সম্পূর্ণ বাকিতে ব্যবসা, ট্যারিফ রেট লঙ্ঘন এবং পাঁচ হাজার টাকার ওপরে নগদ লেনদেনের প্রমাণ পাওয়া যায়। শুনানিতে কোম্পানি প্রতিনিধিগণ এ সমস্ত অনিয়মের ব্যাখ্যা প্রদান করেন।

শুনানি শেষে ট্যারিফ রেট লঙ্ঘনের কারণে কোম্পানির কারওয়ান বাজার শাখার ব্যবস্থাপককে পঞ্চাশ হাজার, বাকিতে ব্যবসার কারণে পঞ্চাশ হাজার এবং বাকি ও নগদ লেনদেনের কারণে কোম্পানিকে আরও পঞ্চাশ হাজার টাকাসহ এক লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা  জরিমানা করা হয়। এছাড়াও মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়।

 অন্যদিকে ট্যারিফ রেট অনুযায়ী আলোচ্য পলিসির বকেয়া প্রিমিয়াম একুশ হাজার দুইশত পঁয়তাল্লিশ টাকা আদায় করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিকে, ২০১২ সালের ১৮ জুলাই ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্সরে ফরিদপুর শাখা পরিদর্শন করে সংস্থাটির পরিদর্শক দল।পরিদর্শন কালে মানি রিসিপ্ট, ব্যাংক ডিপোজিট স্লিপ, পলিসি কাভার নোট এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট পরীক্ষা করে সম্পূর্ণ বাকিতে ব্যবসার প্রমাণ পাওয়া যায়। ওই প্রতিবেদনের ওপর ভিত্বি করে শুনানিতে ডাকে কোম্পানি প্রতিনিধিদেরকে। কোম্পানি প্রতিনিধিগণ এ সমস্ত অনিয়মের ব্যাখ্যা দেন। যআ আইডিআরএ সন্তুষ্ট হতে পারেন নি।

জানা গেছে, শুনানি শেষে সম্পূর্ণ বাকিতে ব্যবসা করার জন্য ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্সকে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও বাকিতে ব্যবসা বন্ধের জন্য শাখা ব্যবস্থাপককে সতর্ক করা হয়। একই সঙ্গে শাখাসমূহের অনিয়ম বন্ধের জন্য মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তাকে তদারকি বাড়াতে বলা হয়েছে।

এদিকে, ২০১২ সালের ৭ মে ও একই বছরের এপ্রিলের ২৪ তারিখে যথাক্রমে প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ঢাবার সেনাকল্যাণ শাখা ও চট্টগ্রামের দেওয়ানহাট শাখা পরিদর্শন করে আইডিআরএ প্রতিনিধি দল। পরিদর্শন কালে মানি রিসিপ্টি, ব্যাংক ডিপোজিট স্লিপ, প্রিমিয়াম রেজিস্টার এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট পরীক্ষা করে কিছু অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়। শুনানিতে কোম্পানি প্রতিনিধিগণ এ সমস্ত অনিয়মের ব্যাখ্যা প্রদান করেন, কিন্তু কর্তৃপক্ষ এতে সন্তুষ্ট হতে পারেন নাই। তবে সংশ্লিষ্ট শাখাসমূহের এটা প্রথমবারের মতো অপরাধ বিবেচনায় মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ও শাখা ব্যবস্থাপককে সতর্ক করা হয় এবং কোম্পানির শাখাসমূহের ওপর মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার নজরদারি আরও জোরদার করতে বলা হয়।

জিইউ