ফেব্রুয়ারিতে রেমিটেন্স কমেছে ৮ শতাংশ

0
67
b bank

b bankচলতি বছরের গত দুই মাস রেমিটেন্স (প্রবাসী আয়) এর ঊর্ধ্বমুখী ধারা থাকলেও ফেব্রুয়ারিতে আবার নিম্নমূখী ধারায় চলে এসেছে। জানুয়ারির তুলনায় ফেব্রুয়ারিতে রেমিটেন্স কমেছে ৯ কোটি ৬৬ লাখ মার্কিন ডলার বা ৭ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

ফেব্রুয়ারিতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা রেমিটেন্স পাঠিয়েছে ১১৬ কোটি ৪০ লাখ মার্কিন ডলার। জানুয়ারি মাসে প্রবাসীদের পাঠানোর বৈদেশিক মুদ্রার পরিমাণ ছিল ১২৬ কোটি ৬৬ হাজার মার্কিন ডলার। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারিতে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে ৩৬ কোটি ৭৫ লাথ মার্কিন ডলার। ৩০টি বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে ৭৬ কোটি ৯৩ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। বিদেশি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১ কোটি ৩৯ লাখ মার্কিন ডলার। দুইটি বিশেষায়িত ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১ কোটি ৩৩ লাখ মার্কিন ডলার।

আলোচ্য সময়ে সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স পাঠিয়েছে বেসরকারি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের মাধ্যমে। ব্যাংকটির মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে ৩০ কোটি ৭৫ লাখ মার্কিন ডলার।

আর এ সময়ে বিশেষায়িত বেসিক ব্যাংক, বিডিবিএল, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বিদেশি হাবিব ব্যাংক ও ন্যাসনাল ব্যাংক অব পাকিস্তানের মাধ্যমে কোনো রেমিটেন্স পাঠায়নি প্রবাসীরা। এছাড়া, নতুন ব্যাংকগুলোতেও এখন পর্যন্ত কোনো রেমিটেন্স আসেনি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগের হালনাগাদ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত ২০১২-১৩ অর্থ বছরে প্রবাসীরা মোট এক হাজার ৪৪৬ কোটি ১১ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়েছেন। এর আগে ২০১১-১২ অর্থবছরে রেমিটেন্সের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৮৪ কোটি ডলার।

বর্তমানে ১৫৭টি দেশে ৮৫ লাখের মতো বাংলাদেশি কর্মরত রয়েছেন। বর্তমান সরকারের সাড়ে চার বছরে প্রায় ২০ লাখ ৪২ হাজার শ্রমিক বিদেশে গিয়েছেন।