মহাজোটের সাবেক দুই মন্ত্রীকে সপরিবারে দুদকে তলব

0
50
Ruhul-Mahbub

Ruhul-Mahbubঅবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বর্তমান সংসদ সদস্য ও সাবেক  দুই মন্ত্রী এবং এক  সংসদ সদস্যের  স্ত্রী-সন্তানসহ সাতজনের সম্পদের বিবরণ চেয়ে নোটিশ পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আগামি সাত কার্যদিবসের মধ্যে তাদেরকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। যাদেরকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে তারা হলেন- সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক, তার স্ত্রী মিসেস ইলা হক ছেলে জিয়াউল হক, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও বর্তমান পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবুর রহমান তালুকদার ও তার স্ত্রী প্রীতি হায়দার এবং রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য এনামুল হক ও তার স্ত্রী তহুরা হক।

সোমবার রাজধানীর সেগুন বাগিচার দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে দুদকের তিন অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা ও উপ-পরিচালক তাদের কাছে পৃথক তিনটি নোটিশ পাঠান বলে নিশ্চিত করেন কমিশনরে জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

দুদক সূত্র জানায়, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক ও তার স্ত্রী সন্তানের সম্পদের বিবরণ চেয়ে নোটিশ প্রদান করেন অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা ও দুদকের উপ-পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম, মাহবুবুর রহমান তালুকদার ও তার স্ত্রীর সম্পদ বিবরণের নোটিশ প্রদান করেন উপ-পরিচালক খায়রুল হুদা এবং এনামুল হক ও তার স্ত্রীর সম্পদের বিবরণ চেয়ে নোটিশ প্রদান করেন উপ-পরিচালক যতন কুমার রায়।

এর আগে রোববার বিকেলে কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে এই সাত জনের নোটিশ প্রদানের বিষয়টি অনুমোদন দেওয়া হয়।

কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা বলেন, হলফনামায় উল্লেখিত সম্পদের পরিমাণ আগের চেয়ে অস্বাভাবিক বলে মনে হওয়ায় এবং অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানের স্বার্থে সাবেক ও বর্তমান এমপি, মন্ত্রী এবং তাদের স্ত্রী-সন্তানের সম্পদের হিসাব চেয়ে নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১২ জানুয়ারি রুহুল হক, মাহবুবুর ও এনামুল হকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক। গত ২১ জানুয়ারি অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা নিয়োগ দেয় কমিশন। আর একই অভিযোগে ইতোমধ্যেই সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক ও পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে কমিশন।