ঝিনাইদহে গত দুই মাসে তিন শিশুসহ নিহত ৯

0
117
jhinaidoho
ঝিনাইদহ ম্যাপ

jhinaidohoঝিনাইদহের ছয় উপজেলায় গত দুই মাসে দুর্বৃত্তদের হাতে তিন শিশুসহ নয় জন নিহত হয়েছে। এসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হলেও বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আসামি গ্রেপ্তার বা মামলার  কোনো ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১০ জানুয়ারি পরকিয়ার প্রেমের জের ধরে কালীগঞ্জ উপজেলার বরাট গ্রামে কামাল হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে হত্যা করে প্রতিপক্ষকরা।

১৮ জানুয়ারি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার টিকারী বাজারে এক মাদ্রাসা ছাত্রসহ দুই জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

২১ জানুয়ারি ঝিনাইদহ পৌর এলাকার উদয়পুর গ্রামে কুমগাবাড়িয়া গ্রামের ইজিবাইক চালককে খুন করে তার গাড়ির ব্যাটারি খুলে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

২২ জানুয়ারি কোটচাঁদপুর উপজেলার সলেমানপুর গ্রামে মায়ের হাতে খুন হয় সুমাইয়া নামে এক শিশু।

২৩ জানুয়ারি কালীগঞ্জ উপজেলার বিলদাপাড়া গ্রামে ছেলের হাতে খুন হন আব্দুল গনি ফকির।

২৬ জানুয়ারি কোটচাঁদপুর উপজেলার নওদাপাড়া গ্রামে যৌথবাহিনীর অভিযানে ক্রসফায়ারে নিহত হন স্কুল শিক্ষক ও জামায়াত নেতা এনামুল হক।

২ ফেব্রুয়ারি হরিনাকুণ্ডু উপজেলার রথখোলা গ্রামে অপহরণের পড় শিশু হযরত আলীকে হত্যা করে একটি কুয়ার মধ্যে ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা।

৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তিপণের দাবিতে অপহৃত স্কুলছাত্রী লক্ষ্মী রানীর লাশ পাওয়া যায় শৈলকুপা উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামে।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের সহকারি পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম জানান, জেলায় চরমপন্থি ও পেশাদার সন্ত্রাসীদের কোনো স্থান নেই। তবে সামাজিক দ্বন্দ্ব ও বিচ্ছিন্নভাবে কিছু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে বলে জানান তিনি।

কেএফ