বিশ্বখ্যাত টনি রোমা’স ফুড চেইন বাংলাদেশে আসছে

0
91
tony roma's, afcl

Tony_Roma_foodরুচিশীল ভোজনরসিকদের মন জয় করতে বাংলাদেশে আসছে আমেরিকান ফুডচেইন ব্র্যান্ড টনি রোমা’স।প্রতিষ্ঠানটি খুব শিগগীরই ঢাকার অভিজাত এলাকায় কয়েকটি রেস্টুরেন্ট চালু করতে যাচ্ছে।এ লক্ষ্যে কোম্পানিটি রোববার স্থানীয় ফুড চেইন এশিয়া লিমিটেডের (এফসিএএল) সাথে এক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

রোববার বিকেলে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে টনি রোমা’স ও এফসিএএলের মধ্যে চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়।টনি রোমা’স এর গ্লোবাল চেয়ারম্যান কেনথ লি মায়ার’স এবং ফুড চেইন এশিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী মো. লুৎফর রহমান এ চুক্তিতে সই করেন।এসময় টনি রোমা’স এর প্রধান নির্বাহী ব্রেডলি স্টেবেন স্মিথসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চুক্তি অনুসারে বাংলাদেশসহ তিনটি দেশে টনি রোমা’স এর শাখা পরিচালনা করবে এএফসিএল। বাকী দেশ দুটি হচ্ছে ভারত ও নেপাল। এছাড়া মায়ানমার ও শ্রীলংকায়ও টনি রোমা’র এর হয়ে রেস্টুরেন্ট পরিচালনার অধিকারও পেতে যাচ্ছে এএফসিএল। বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। এতদিন মূলত ভারত থেকে বিভিন্ন গ্লোবাল ব্র্যান্ডের কার্যক্রম মনিটর করা হলেও এএফসিএল ও টনি রোমা’স এর চুক্তির মধ্য দিয়ে এ ধারায় ছেদ পড়েছে। এএফসিএল প্রথম কোম্পানি হিসেবে বাংলাদেশ থেকে ভারতসহ কয়েকটি দেশে কার্যক্রম পরিচালনা ও মনিটর করবে।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে জানানো হয়,টনি রোমা’স বাংলাদেশে বিদ্যমান অন্যান্য ব্র্যান্ডের রেস্টুরেন্ট কিংবা ফাস্ট ফুড খাবারের দোকানের মত নয়।এখানে রুচিশীল মানুষরা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘরের খাবারের মতো খেতে পারবে।গতানুগতিক ফার্স্টফুডের বাইরে এখানে বিশ্বখ্যাত রিব, ক্রিপস ফ্রেশ সালাদস, মাউথওয়াটারিং, চার-গ্রিল্ড স্টিকস, অরিজিনাল বারবিকিউ চিকেন ও ডেলিসিয়াস সিফুড থাকবে।একটি পরিবারের চাহিদা মেটাতে এখানে ৪০ শতাংশ দেশি খাবারের সমন্বয়ে ফ্যামিলি প্যাক দেওয়া হবে। আর এর মূল্যও নেওয়া হবে অনেক কম।

অনুষ্ঠানে টনি রোমা’স এর চেয়ারম্যান লি মায়ার’স বলেন,টনি রোমা’স ১৯৭২ সালে আমেরিকার মিয়ামিতে প্রথম খাবারের দোকান দেয়। তখন থেকেই দূর-দূরান্তের বিভিন্ন লোক এ খাবারের স্বাদ নেওয়ার জন্য ভিড় করতে থাকে।বর্তমানে বিশ্বের ৩৫টি দেশে ১৬০টির বেশি রেস্টুরেন্ট রয়েছে এ প্রতিষ্ঠানের।৩৬ তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশেও এ খাবার সুনাম অর্জন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এফসিএএল এর চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান বলেন,দেশের মানুষের রুচি ও চাহিদানুযায়ীই দেশি বিদেশী খাবার তৈরি করা হবে টনি রোমা’স এর রেস্টুরেন্টগুলোতে।এজন্য বিভিন্ন দেশ থেকে খাদ্য তৈরির বিশেষজ্ঞরা আসবে এবং আমাদের দেশের মানুষের রুচি অনুযায়ী খাবার তৈরি করবে। এখানে একটা পরিবারের জন্য ‘ফ্যামিলি প্যাক’ ২ হাজার টাকার কাছাকাছি খরচে হয়ে যাবে।

তিনি আরও জানান,চুক্তি অনুযায়ী ১০ বছরের মধ্যে ঢাকাসহ বড় বড় শহরে কমপক্ষে ১০টি রেস্টুরেন্ট খোলা হবে।তবে ৭ থেকে ৮ মাসের মধ্যে ঢাকাতে তিনটি রেস্টুরেন্ট খোলা হবে।