সড়ক দূর্ঘটনায় মৃতের হার শুন্যে আনার ঘোষণা আবু-ধাবির

0
77

death-tollবিশ্বে যখন সড়ক দূর্ঘটনায় প্রতিদিন ঝরে পড়ছে হাজার হাজার প্রাণ । সেখানে আগামি ২০৩০ সালের মধ্যে  সড়ক দূর্ঘটনায় মৃত্যুহার শুন্যর কোটায় আনার ঘোষণা দিয়েছে আবু-ধাবি । এ উপলক্ষ্যেকে সামনে রেখে প্রদেশটির শুরু হচ্ছে জিসিসি ট্রাফিক সপ্তাহ। আগামি ৯ মার্চ থেকে সপ্তাহটি শুরু হয়ে ১৫ মার্চ পর্যন্ত সপ্তাহটি চলবে।

দেশটির পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, সপ্তাহটির স্লোগান হচ্ছে ‘আমাদের লক্ষ্য, আপনার নিরাপদ’। লক্ষ্যকে সামনে রেখে  বিশ্ববিদ্যলয় স্কুল কলেজে এমনকি কমিউনিটি পর্যায়ে প্রচার চালাবে তারা।

দুবাইয়ের ট্রাফিক বিভাগের প্রধান ব্রিগেডিয়ার হোসেন আহমেদ আল হারিথির বরাত দিয়ে খালিজটাইমের  প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১১ সালের পর থেকে দেশটিতে সড়ক ট্রাফিক নীতির ব্যবহার জোরদার হয়েছে। ফলে আগের তুলনায় কমেছে সড়ক দূর্ঘনায় মৃত্যুহার। এছাড়া মানুষের মধ্যেও বেড়েছে ট্রাফিক সচেতনতা। এ অবস্থা চলতে থাকলে আগামি ১৫ বছরের মধ্যেই আবু ধাবিতে সড়ক দূর্ঘটনায় মৃতের হার শুন্যে পৌছাবে আশা করেন হারিথ। তিনি বলেন, ‘আমাদের টার্গেট হচ্ছে ২০১৩ সালের মধ্যে আবু ধাবিতে এই দূর্ঘটনায় মৃত্যুহার একেবারে শুণ্যর কোটায় নিয়ে আসা’।

খালিজ টাইমে আরও বলা হয়, জিসিসি ট্রাফিক সপ্তাহ ২০১৪ এর আয়োজনে সবকিছু ইতোমধ্যে প্রস্তত করা হয়েছে। এই সপ্তাহটিতে  প্রদর্শণ করা হবে ট্রাফিক আইন মেনে চলা কিংবা উন্নত ট্রাফিক নীতি। পাশাপাশি থাকছে আবু ধাবির রাস্তা-ঘাট ও যান চলাচল অবস্থা। সেই সাথে সাধারন মানুষ কিভাবে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পদক্ষেপ নিবে তার কোশল।

সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সড়ক দূর্ঘটনায় বিশ্বে প্রতিবছর যেভাবে মানুষ মরছে তা আসবে হৃদয় বিদারক। আবু ধাবিতে মৃত্যুহার কমিয়ে আনতে দেশটির স্কুল ও কলেজে ক্যাম্পেইন সহ পাঠ্যবইয়ে ট্রাফিক আইন ও নিয়ম নীতি নিয়ে অধ্যায় রাখার ব্যবস্থা করা হবে।

তবে শুধু সরকারের পক্ষ থেকে এগিয়ে আসলে এটির সমাধান হবে না। সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে আসতে হবে বিশ্বের আন্তর্জাতিক এনজিও ও বেসরকারি সংস্থাগুলোকে। তাহলেই দেখা যাবে, একদিন শুধু আবু ধাবি নয়, সারাবিশ্বে সড়ক দূর্ঘটনায় মৃতের হার শুণ্যর কোটায় নেমে আসবে বলে জানানো হয় ওই প্রতিবেদনে।

এস রহমান/