ভয় এবং উদ্বিগ্নতা এগিয়ে চলার পাথেয় !

0
131

fear and anxietyভয় এবং উদ্বিগ্নতা মানুষের জীবনের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এ দুটি থেকে কারো নিস্তার নেই। তবে এই দুটি আবেগ মানুষকে শুধু কষ্টই দেয় না, বরং কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে পারে। তাই সাময়িক দুর্বলতা তৈরি করলেও প্রকৃতপক্ষে ভয় এবং উদ্বিগ্নতা সামনে এগিয়ে যাওয়ার পাথেয় যোগায়। এরকমই আশার বাণী শুনিয়েছেন দুবাই-এর বিশ্বখ্যাত কগনেটিভ বিহেভিয়ার হিপনোথেরাপিস্ট বিশেষজ্ঞ রাসেল হেমিং।

সম্প্রতি গালফ নিউজে প্রকাশিত এক নিবন্ধে তিনি বলেন, জীবনকে সুরক্ষিত করতে চাইলে অবশ্যই এর বিপরীতে জয়ী হতে হবে। যখনই কোন মানুষ বিপদ কিংবা অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে চায়, তখন এ দুটোই অগ্রদূতের মত পথ দেখাতে পারে।

তিনি জানান, উদ্বিগ্নতা ক্যারিয়ার এবং সামাজিক জীবন-যাপনের জন্য ক্ষতিকর। কাজেই  কোন পরিস্থিতিতে পাওয়া কষ্ট থেকে নিজেকে সতর্ক রাখা উচিত। এভাবেই ব্যক্তি নিজের একটা গন্ডি তৈরি করতে পারে। তখন অন্যরা তার সম্পর্কে কি ধারণা পোষণ করছে তাও সে বুঝতে পারে।

তিনি আরো জানিয়েছেন, ভয়কে জয় করার সক্ষমতার জন্য আগে মনটাকে নিজের মত করে তৈরি করে নেয়া উচিত। তাহলেই যে কোন প্রতিকূল পরিবেশ শক্ত হাতে মোকাবেলা করা সহজ হয়।

চলতে গেলে বাধা বিপত্তি আসবেই। তাই বলে চুপ করে বসে থাকলে চলবে না। বরং সঠিক পথটাই বেছে নেয়া প্রয়োজন। ভয়ের উৎপত্তি এবং ভয় সম্পর্কিত অনুভূতিগুলো জানা থাকলে সামনে থেকে তা মোকাবেলা করা সম্ভব। এভাবে একদিন সফলতা সুনিশ্চিত হয়ে উঠে।