কলা খান সুস্থ থাকুন

0
252
banana

bananaকলা সবার প্রিয় একটি ফল। কলায় রয়েছে অনেক খাদ্যগুণ। কলা শুধু ফিট থাকতে সাহায্য করে না, ত্বকের জন্যও অনেক বেশি উপকারী। কলা হয়ত আমরা দুই-একদিন পর একটি বা দুটি খাই। আবার কয়েক দিনেও খাওয়া হয় না। কিন্তু প্রতিদিন একটা কলা খাওয়ায় অনেক বশি উপকার পাওয়া যায়।

কলার উপাদান:

কলাতে রয়েছে শর্করা, মিনারেল, পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম। কলা খুব তাড়াতাড়ি শরীরে এনার্জি এনে দেয়। পটাশিয়াম শরীরের এনজাইমকে সক্রিয় রাখে এবং মাংসপেশিকে কোমল ও মসৃণ করে নার্ভকে সতেজ রাখতে সহায়তা করে। কলায় রয়েছে প্রচুর প্রোটিন এবং শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ৮টি অ্যামিনো অ্যাসিড।

কলা এমন একটি ফল যা সারা বছর পাওয়া যায়। আমরা যে খাবার খাই তার পুষ্টিগুণের কারণে শরীর ভালো লাগা এবং সরাসরি মস্তিস্ক থেকে ভারসাম্য রক্ষার নির্দেশ পায় । কলা খাওয়ার পর মেজাজ ভালো হয়ে যায় তাড়াতাড়ি। এমন অনেক মানুষ আছেন, যাঁদের ঘুম থেকে ওঠার পর কিছুই খেতে ইচ্ছে করে না, তাঁদের জন্য কলা খুবই প্রয়োজনীয় একটি খাবার।

কলার উপকারিতা: যারা নিয়মিত বুক জ্বালাপোড়ার সমস্যায় ভুগছেন তাঁরা প্রতিদিন একটি করে কলা খান ভরা পেটে। কলা বুক জ্বালা পোড়া কমায় এবং পাকস্থলীতে ক্ষতিকর এসিড হতে দেয় না।

কলা শুধু শরীরের ভেতরকেই ভালো রাখে না, বাইরের সৌন্দর্যকেও বাড়িয়ে তোলে।

কলা এনার্জি এনে দেয় এবং পাকস্থলিকে সক্রিয় রাখতেও সাহায্য করে।

কলাকে বলা হয় নানা রোগের প্রাকৃতিক ওষুধ। কলা হতাশা কমায়, রক্তশূন্যতা রোধ করে, উচ্চ রক্তচাপ, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। কলা খেলে মাইগ্রেনের ব্যথা অনেকটা উপশম হয়।  পর্যাপ্ত পটাশিয়াম থাকায় কলা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

কলার ভিটামিন বি-৬ রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে। তাই মাত্র একটি কলা খেলেই অনেক সময় পর্যন্ত সেটা শরীরে শক্তি যোগায়।

অতিরিক্ত জ্বর কিংবা হঠাৎ ওজন কমে গেলে শরীর দুর্বল হয়ে যায়। এ সময়ে কলা খেলে শরীরে শক্তির সঞ্চার হয় এবং তাড়াতাড়ি দুর্বলতা কেটে যায়।

কলা পাকস্থলীতে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি রোধ করতে সহায়তা করে।

কলায় প্রচুর আয়রন আছে যা রক্তে হিমোগ্লোবিন উৎপাদনে সাহায্য করে। ফলে যারা রক্ত শূন্যতায় ভুগছেন তাদের জন্য কলা খুবই উপকারী একটি ফল।

কলায় ফ্যাটি এসিডের চেইন আছে যা ত্বকের কোষের জন্য ভালো এবং শরীরকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও এই ফ্যাটি এসিড চেইন পুষ্টি গ্রহণ করতেও সাহায্য করে।

তাই শরীরের জন্য খুবই উপকারি এই ফলটি আপনার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রাখুন। কলা খান, সুস্থ থাকুন।

কেএফ/