ডিএসইতে সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন বেড়েছে ৩৫ শতাংশ

0
60
dse index
সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা

dse1ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এক সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন বেড়েছে ৩৫ দশমিক ৯২ শতাংশ। ডিএসইতে আগের সপ্তাহের চেয়ে গত সপ্তাহে ডিএস৩০ এবং শরীয়াহ সূচক বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে। তবে কমেছে ডিএসইএক্স বা প্রধান সূচক।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, গত সপ্তাহে আট কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা করায় লেনদেন বেড়েছে বাজারে।  কোম্পানির লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের পছন্দ হলে সেই শেয়ারের চাহিদা বেড়ে যায়।  তবে সপ্তাহের শেষ দিনে বেশির ভাগ ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়েছে। সেই কারণে আগামি সপ্তাহে বাজার ভালো যেতে পারে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩৫ দশমিক ৯২ শতাংশ। গত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৫৩৫ কোটি ৭৩ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩৭ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৮৬৫ কোটি ৬৬ লাখ ১৮ হাজার ৮৪৪ টাকা।

এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন ছিল ৯২ দশমিক ০৪ শতাংশ, ‘বি’ ক্যটাগরির লেনদেন ছিল ২ দশমিক ৭৯ শতাংশ, ‘এন’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ২ দশমিক ১৫ শতাংশ এবং ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন ছিল ৩ দশমিক ০২ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএস৩০ সূচক বেড়েছে ৩৫ শতাংশ বা ৫ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল ১ হাজার ৬৮৮ পয়েন্টে। আর সপ্তাহের শেষ দিনে এই সূচক অবস্থান করে ১ হাজার ৬৯৩ পয়েন্টে।

শরীয়াহ সূচক বেড়েছে দশমিক ৭২ শতাংশ বা ৭ দশমিক ১৩ পয়েন্ট। সপ্তাহের প্রথম দিনে এই সূচকের অবস্থান ছিল ৯৯৫ পয়েন্ট। আর সপ্তাহের শেষে এই সূচক দাঁড়ায় ১ হাজার ২ পয়েন্টে।

অপরদিকে প্রধান সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে দশমিক ২৪ শতাংশ বা ১১ দশমিক ৩১ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে এই সূচক ৪ হাজার ৭৬১ পয়েন্ট থেকে নেমে ৪ হাজার ৭৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করে।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডর শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯২টির কমেছে ১৯২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৩টির। আর লেনদেন হয়নি ৫টি কোম্পানির।

এমআরবি/