সুশাসন ও যথাযথ পরিকল্পনা নিশ্চিত হলে প্রবৃদ্ধি হবে ৮ শতাংশ

0
109
FBCCI

FBCCIদেশের উন্নয়নে সুশাসন ও সুদুরপ্রসারি পরিকল্পনা দরকার বলে মনে করেন ব্যবসায়ীরা। তাদের মতে দেশ ও জাতিকে এগিয়ে নিতে যথাযথ পরিকল্পনার বিকল্প নেই। তাদের মতে ভালো পরিকল্পনা ও সুশাসনের মাধ্যমে ভালো পরিবেশ নিশ্চিত করা গেলে দেশের অর্থনীতি আরও এগিয়ে যাবে। আর এমনটি করা হলে দেশের প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশ হবে বলে মত প্রকাশ করেন তারা।

বৃহস্পতিবার ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) ভবনে ‘বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায়  এসব কথা বলেন ব্যবসায়ী নেতারা।

সভায় কাজী আকরাম বলেন, দেশ ও জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দরকার সঠিক পরিকল্পনা। তার মতে পরিকল্পনা হতে হবে মানুষের জন্য।

তিনি পরিকল্পনা করার সময় ব্যবসায়ীদের সম্পৃক্ত করারও আহ্বান জানান। তিনি বলেন ব্যবসায়ী বান্ধব পরিকল্পনা করতে হবে। তার মতে, ব্যবসায়ীরা উন্মুক্ত পরিবেশ পেলে দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে।

সবার মনে সুশাসনের আকাংখা রয়েছে এমন উল্লেখ করে পরিকল্পনা সচিব ভূঁইয়া সফিকুল ইসলাম বলেন,  এগিয়ে যেতে হলে একদিকে সুশাসন থাকতে হবে অপরদিকে বিনিয়োগ যেন সুপরিকল্পিত হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।

এসময় পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য হেদায়েত উল্লাহ আল মামুন দেশের উন্নয়নে বেসরকারি খাতের ৭৭ শতাংশ অবদান রয়েছে উল্লেখ করে তাদের স্বার্থে একটি সুদূর প্রসারি পরিকল্পনা করা হবে।

ব্যবসায়ীরা এসময় বেশ কিছু নতুন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অবস্থা তুলে ধরেন এবং এগুলো যথাসময়ে বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণ হিসেবে যথাযথ পরিকল্নার ঘাটতিকেই দায়ি করেন তারা।

এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সহ-সভাপতি দেওয়ান সুলতান  শিল্প-কারখানায় গ্যাসের সমস্যা,  ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চার লেনের রাস্তা তৈরির কাজ শেষ না হওয়ার কথা উল্লেখ করে এটি পিপিপির ভিত্তিতে বাস্তবায়নের করা যেতে পারে বলে মনে করেন।

এছাড়াও ঢাকা-চট্টগ্রামে একটি ইকোনোমিক জোন করার আহ্বান জানান এফবিসিসিআই পরিচালক আব্দুল হক। আর এমনটি করা হলে দেশের প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশ হবে বলে মত প্রকাশ করেন তিনি। তিনি দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির জন্য ব্যবসায়ীরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে বলে মন্তব্য করেন।

এইচকেবি/