রাজশাহীতে ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

0
48
rajshahi

rajshahiরাজশাহীর বাঘা উপজেলায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ৪৯টি ভোটকেন্দ্রের ৩৭৪টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। এখন চলছে ভোট গণনার কাজ।

তবে এর মধ্যে উপজেলার কেশবপপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে জামায়াত কর্মীদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ কর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ এক নবিউল নামে জামায়াত কর্মীকে আটক করে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুর রহমান তাকে জামায়াত কর্মী বলে দাবি করে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

প্রিজাইডিং অফিসার হাবিবুর রহমান জানান, অল্প সময়ের জন্য অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেও পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায়।

এ উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৯ হাজার ১৮২। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬৪ হাজার ৮৫৬ ও মহিলা ভোটার ৬৪ হাজার ৩২৬। মোট ৪৯টি ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেছেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আজিজুল আলম (আনারস), বিএনপির মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন (ঘোড়া) বিএনপির বিদ্রোহী উপজেলা যুবদলের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন (দোয়াত কলম) ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল গনি মণ্ডল (মোটরসাইকেল) এবং উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা জিন্নাত আলী (কাপ-পিরিজ)।

অপরদিকে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে আ.লীগ মনোনীত বাবুল ইসলাম (টিউবওয়েল), বিদ্রোহী হাসমত আলী (মাইক), বিএনপির দলীয় প্রার্থী মোকলেসুর রহমান মুকুল (চশমা), বিদ্রোহী প্রার্থী শাহিন মণ্ডল (তালা), ইসরাফিল হোসেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (বাল) ও শফিউর রহমান শফি জাসদ ইনু (টিয়াপাখি) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে আ.লীগ মনোনীত জয়জয়ন্তী সরকার (ফুটবল), বিদ্রোহী প্রার্থী ফাতেমা খাতুন লতা (কলস) ও বিএনপির একক প্রার্থী ফারহানা রুমি (প্রজাপতি) নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

কেএফ