উপজেলা নির্বাচন শেষ, চলছে ভোট গণনা

0
89
Vote elect

Vote electদ্বিতীয় দফায় ১১৫টি উপজেলায় বিক্ষিপ্ত সহিংসতার মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এখন চলছে গণনা। বৃহস্পতিবার এসব উপজেলার ৮ হাজার ১৩১টি কেন্দ্রে  সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। এ সময় দেশের বিভিন্ন এলাকায় নানা সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। বেশ কিছু এলাকায় ভোট গ্রহণ স্থগিত হয়েছে। অনেক এলাকায় প্রার্থীরাও ভোট বর্জন করেছেন।

দেশের ১১৫টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষে এখন প্রতিটি কেন্দ্রে  কেন্দ্রে ভোট গণনা শুরু হয়েছে বলে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম জানান।

তিনি জানান, নির্বাচনের পরিবেশ না থাকায় নোয়াখালী সদর উপজেলার সবকয়টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া, সিরাজগঞ্জের তাড়াশের একটি, বরিশাল সদরের ১১টি, ফরিদগঞ্জের ৮টি ও ফেনী সদরের একটি ভোট কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে মোট ২১টি ভোট কেন্দ্র স্থগিতের খবর দিলেও স্থানীয়ভাবে প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এই সংখ্যা আরও বেশি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশের ১১৫টি উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যানের মোট ৩৪৫টি পদে ১৩ শ’রও বেশি প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আর ভোটার ছিলেন, ১ কোটি ৯৮ লাখ ৫১ হাজার ১৭৬ জন।

তিনি আরও জানান,  আজ ভোটের সময় ক্ষেতলাল উপজেলার ৩১ নম্বর ভোটকেন্দ্রে পলাশ চন্দ্র মহন্ত (৩০) এবং কেরানীগঞ্জ উপজেলার ১৯২ নম্বর কেন্দ্রে শহীদুল ইসলাম নামের দুই পোলিং কর্মকর্তা হৃদরোগে মারা যান।

আজ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে এর মধ্যে ঠাকুরগাঁও, যশোর, মুন্সীগঞ্জ, ফেনী, বরিশালসহ বেশ কিছু উপজেলায় সহিংসতা-সংঘর্ষের ঘটনায় রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রয়োজন অনুযায়ী’ ব্যবস্থা নিয়েছে বলেও জানান তিনি।

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে দল বেঁধে ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দেওয়ায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ভোটারদের সংঘর্ষে অন্তত ৩৯ জন আহত হয়েছে।