বাগেরহাটে বিজিবি-ভোটার সংঘর্ষ

0
58
Bagerhat

Bagerhatবাগেরহাটের ফকিরহাটে বিজিবির সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে দুটি ব্যালট বাক্স পুড়িয়ে দিয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসী। এ ঘটনায় সাতসিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

বাগেরহাট পুলিশ সুপার মো. নিজাম উদ্দিন মোল্লা জানান, বিজিবির সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী সরদার নিয়ামত হোসেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলাম এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দুই সদস্যসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শুকুর আলী জানান, বিজিবি ও এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সাতসিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

চেয়ারম্যান প্রার্থী সরদার নিয়ামত হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগের সমর্থক হারুনুর রশিদ এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য জামানের মোটর সাইকেল রাখাকে কেন্দ্র করে সকালে বিজিবি সদস্যদের সঙ্গে দু’জনের বাক-বিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে বিজিবি সদস্যরা তাদের লাঠিপেটা করে আটক করে। এরই জের ধরে এলাকার লোকজন রাস্তা অবরোধ করে রাখে। আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে হারুন ও জামানকে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করলে বিজিবি আমাকেও তুলে থানায় নিয়ে গিয়ে মারধর করে।

সাতসিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার নজিবুর রহমান বলেন, হামলার পর ভোটকেন্দ্রের কর্মকর্তারা একটি কক্ষে গিয়ে আশ্রয় নেন। এ সময় হামলাকারীরা ভোটকেন্দ্রের দুটি ব্যালট বাক্সে আগুন ধরিয়ে দেয়।