বাংলাদেশি তরুণ উদ্যোক্তাদের চিলিতে নতুন ব্যবসা স্থাপনের আহ্বান

0
83
DCCI-Chile

DCCI-Chileঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)’র সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান খানের সাথে চিলির মান্যবর রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান ব্যারোস বুধবার ডিসিসিআইতে সাক্ষাৎ করেন।

এ সময় ডিসিসিআই সভাপতি শাহজাহান খান বলেন, ২০১৩ সালে চিলির সরকার বাংলাদেশি পণ্য চিলিতে রপ্তানীর ক্ষেত্রে শুল্ক মুক্ত সুবিধা প্রদান করেছে। যার ফলে দু’দেশের মধ্যকার ব্যবসা-বাণিজ্য আরও দ্রুত বৃদ্ধি পাবে।

তিনি বলেন, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে চিলির অর্থ মন্ত্রণালয় উন্নয়নশীল দেশসমূহের পণ্য চিলিতে রপ্তানীর ক্ষেত্রে শূণ্য হারে কাস্টমস ফি আরোপ করেছে এবং বাংলাদেশি পণ্যের ক্ষেত্রে উক্ত সুবিধা বলবৎ রাখার আহ্বান জানান। তিনি চিলির ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশ থেকে আরও বেশি হারে টেক্সটাইল, তৈরি পোষাক, পাট ও পাটজাত পণ্য, পাদুকা এবং ঔষধ প্রভৃতি পণ্য আমদানির আহ্বান জানান।

চিলির রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান ব্যারোস বলেন, চিলির সরকার “স্টার্টআপ চিলি” নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে। যার মাধ্যমে সারাবিশ্ব থেকে উদীয়মান ও সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে চিলিতে বিনিয়োগ করার সুযোগ প্রদান করবে। এ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে ৭০টি দেশের ব্যবসায়িক প্রকল্প সম্বলিত ৫,৬০০টি আবেদন জমা পড়েছে।

তিনি আরও জানান, এ প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপে আগামি ১১ মার্চ থেকে ৯ এপ্রিলের মধ্যে আবেদন জমা দেওয়া যাবে। তিনি বাংলাদেশের তরুণ উদ্যোক্তাদের এ সুযোগ গ্রহণ করে সে দেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। তিনি ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্পসারণের লক্ষ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরও উন্নতকরণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

ডিসিসিআই ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি ওসামা তাসীর ঢাকা চেম্বার কর্তৃক গৃহীত “২০০০ নতুন উদ্যোক্তা তৈরি” প্রকল্প বিষয়ে তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন।

ডিসিসিআই সহ-সভাপতি খন্দকার শহীদুল ইসলাম, পরিচালক হায়দার আহমদ খান, এফসিএ, হুমায়ুন রশীদ, মুক্তার হোসেন চৌধুরী, হোসেন এ সিকদার, আলহাজ্ব আব্দুস সালাম, মোঃ শোয়েব চৌধুরী, এ কে ডি খায়ের মোহাম্মদ খান, চিলি দূতাবাস নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলর রডরিগো গেলারডো এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত চিলির কনস্যুল আসিফ এ চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি