কৃষিঋণ বিতরণে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে নতুন শাখা নয়

0
55

BB_Meetingকৃষিঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না করলে সদ্য অনুমোদন পাওয়া ব্যাংকগুলোকে আর কোনো শাখা খোলার অনুমোদন দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

বুধবার বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে তফসিলভূক্ত ব্যাংকের নির্বাহীদের সাথে বৈঠকে তিনি এ সতর্কতা উচ্চারণ করেন।

তিনি বৈঠকে ব্যাংকগুলোকে কৃষিঋণ বিতরণে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য জোর তাগিদ দেন।

গভর্নর এ সময় নতুন অনুমোদন পাওয়া নয়টি ব্যাংকের মধ্যে আটটি ব্যাংক এখন পর্যন্ত কোনো কৃষি ঋণ বিতরণ করেনি উল্লেখ করে বলেন, নতুন ব্যাংকগুলোর লাইসেন্স পাওয়ার অন্যতম শর্ত ছিল তাদের মোট বিতরণকৃত ঋণের ৫ শতাংশ কৃষি খাতে বিতরণ করতে হবে। কিন্তু চলতি  অর্থবছরের সাত মাস পার হলেও আটটি ব্যাংক এখনও ঋণ বিতরণ শুরুই করেনি। তাই ঋণ বিতরণে কাঙ্খিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হলে তাদের নতুন শাখা খোলার অনুমোদন দেওয়া হবে না তিনি জানান।

এছাড়া বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে অন্যান্য কার্যক্রমের সঙ্গে কৃষি ও পল্লী ঋণের জন্য আলাদা বিভাগ খোলা এবং প্রয়োজনীয় লোকবল নিয়োগের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেন গভর্নর। তবে গত অর্থবছরে অন্যান্য ব্যাংকগুলো তাদের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪ শতাংশ ঋণ বিতরণ করেছে। চলতি অর্থবছরেও আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি ১৪ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে ( জুলাইÑজানুয়ারি) পর্যন্ত ৮ হাজার ৮২০ কোটি টাকা কৃষি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। যা লক্ষ্যমাত্রার ৬০ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

গভর্নর বলেন, এই সাত মাসে আদায়যোগ্য কৃষি ঋণের মাত্র ৩১ শতাংশ আদায় হয়েছে। তাই, শুধু বিতরণ নয়, কৃষি ঋণ আদায়েও আপনাদের তৎপরতা দেখাতে হবে। সম্প্রতি পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে, আলু ও টমেটো চাষিরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না। পাহাড়ের আদা ও হলুদ চাষিরাও মৌসুমের সময় তাদের পণ্যের সঠিক মূল্য প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হন। এভাবে অনেক কৃষকই তাদের উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্য পাচ্ছেন না। ব্যাংকগুলো ফলদায়ক করতে পারে কিনা সে বিষয়টি আপনারা ভেবে দেখবেন।

বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষিঋণ ও আর্থিক সেবাভূক্তি বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক আব্দুল হাকিম। তফসিলভুক্ত ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, কৃষিঋণ ও আর্থিক সেবাভুক্তি বিভাগের মহাব্যবস্থাপক প্রভাষ চন্দ্র মল্লিক।