পুঁজিবাজারকে শিল্প- অর্থায়নের প্রধান উৎসে পরিণত করা হবে : প্রধানমন্ত্রী

0
33
Shekh_Hasina

Shekh_Hasina capital market development  bsecপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার পুঁজিবাজার উন্নয়নে সব ধরনের সহায়তা দিয়ে যাবে। উন্নত বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও পুঁজিবাজারকে শিল্পায়নের অর্থ সংগ্রহের প্রধান উৎসে পরিণত করা হবে। শিল্প-বাণিজ্যে ব্যাংক নির্ভরতা কমিয়ে ঝুঁকিও কমানো হবে।

বুধবার পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) প্রতিনিধি দলের সাক্ষাতে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিনিধি দলটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী আইপিও, প্লেসমেন্ট, রাইট ইস্যু, করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইনসহ বিভিন্ন সংস্কার, স্টক এক্সচেঞ্জের ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনসহ পুঁজিবাজারের সাম্প্রতিক বিভিন্ন সংস্কারের জন্য বিএসইসির প্রশংসা করেন। নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর আন্তর্জাতিক ফোরাম আইওএসকোতে বিএসইসির সদস্য পদ বি ক্যাটাগরি থেকে এ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হওয়ার বিষয়কে তিনি বড় অর্জন হিসেবে অভিহিত করেন। এর জন্য বিএসইসির পুরো টিমকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আন্তর্জাতিক ফোরামে বিএসইসির অর্জনের স্বীকৃতি দেশের মর্যাদা বাড়াতে ভুমিকা রাখবে। এ বাজারের প্রতি বিদেশী বিনিয়োগকারীরা আরো আস্থাশীল হবে। বাজারে বিদেশী বিনিয়োগ বাড়বে। তিনি এ অর্জনের জন্য বিএসইসিকে অভিনন্দন জানান। পাশপাশি সংস্থার কর্মকর্তাদেরকে একটি টিম হিসেবে কাজ করে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, দেশে অনেকগুলো রেগুলেটরি সংস্থা আছে। তাদের মধ্যে বিএসইসিকেই সবচেয়ে সফল বলতে হবে। ২০১০ সালের ধসের পর তারাদিন রাত পরিশ্রম করে বাজারকে স্থিতিশীল করেছে। প্রয়োজনীয় নানা সংস্কার করেছে বাজারে।

এ বিষয়ে বিএসইসি চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. খায়রুল হোসেন অর্থসূচককে বলেন, মূলত আইওএসকোর অর্জনের জন্য অভিনন্দন জানাতে আমাদেরকে ডেকেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তবে সেখানে সাম্প্রতিক সংস্কার, বাজার উন্নয়নসহ নানা বিষয় উঠে আসে।

বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন নিজামী অর্থসূচককে বলেন, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তিনি বিএসইসির কার্যক্রমে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। আমরা আগামি দিনে বাজারের ব্যাপ্তি বাড়ানো, ক্লিয়ারিং হাউজ প্রতিষ্ঠা, কমোডিটি এক্সচেঞ্জ স্থাপন ও ডেরিভেটিভস চালুসহ নানা পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। তিনি এসব বিষয়ে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

সাক্ষাতে প্রফেসর ড. খায়রুল হোসেন বিএসইসির এ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হওয়া সংক্রান্ত আইওএসকো’র সনদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন। অন্যদিকে এ অর্জনের জন্য বিএসইসিকে ক্রেস্ট দিয়ে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী।