মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরাই ২১ আগস্ট হামলায় দায়ী: প্রধানমন্ত্রী

অর্থসূচক ডেস্ক

0
78
বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি টিভি স্ক্রিন থেকে নেওয়া।

একাত্তর পরবর্তী বাংলাদেশে স্বাধীনভাবে বসবাসকারী মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরাই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার জন্য দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ রোববার বিকেলে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আয়োজিত ২১ আগস্টের স্মরণ সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালে একাত্তরের মানতবাবিরোধী দোসররা আমার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করে। শুধু তাই নয়, তারা কারাগারে দেশের জাতীয় নেতাদের হত্যা করে। আমরা দুই বোন দেশের বাইরে থাকায় বেঁচে যাই।

বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি টিভি স্ক্রিন থেকে নেওয়া।
বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি টিভি স্ক্রিন থেকে নেওয়া।

তিনি বলেন, এখানেই থেমে থাকেনি ষড়যন্ত্রকারীরা। দেশের মাটিতে পা দেবার পর থেকে তারা প্রতিনিয়ত আমাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছে। বারবার আমাকে মৃত্যুর সম্মুখীন হতে হয়েছে। সেদিন আমরা সন্ত্রাসবিরোধী র‍্যালী করছিলাম। র‍্যালী শেষে আমার বক্তব্য শেষ করা মাত্র গ্রেনেডগুলো আসে আমাকে লক্ষ্য করে। কিন্তু তাদের নিশানা ব্যর্থ হয়। আমার বদলে মেয়র হানিফের মাথায় অনেকগুলো স্প্রিন্ট ঢুকে যায়। তার রক্তে আমার শরীর লাল হয়ে যায়। নিহত হন আইভী রহমানসহ দলের আরো নেতাকর্মীরা। আমি ২১ আগস্টে নিহত আমার নেতাকর্মীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করছি।

এসময় তিনি তৎকালীন সরকার প্রধান বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, একটি দেশে এতোবড় একটি গ্রেনেড হামলা হয়েছে। কিন্তু সরকার এর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে ঘটনাস্থলের আলামত নষ্ট করে দেয়। এমনকি আমাদের আহত নেতাকর্মীর চিকিৎসার জন্য বিএনপিপন্থী কোনো ডাক্তার পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের ঢুকতে পর্যন্ত দেওয়া হয়নি।

বিচারের নামে জজ মিয়া নাটক তৈরির কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক চাপে গ্রেনেড হামলার বিচারে তারা জজ মিয়া নাটক তৈরি করে। নিজেদের দোষ আড়াল করতে তারা কোন জজ মিয়াকে অভিযুক্ত করে বিচার করে। তখন আমি বিরোধী দলের প্রধান। কিন্তু এতবড় একটা ঘটনার পর এ বিষয়ে সংসদে আমাদের কোনো কথা বলতে দেওয়া হয়নি।

২১ আগস্টের পূর্বে এক জনসভায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দেওয়া এক বক্তব্যের উদ্ধৃতি টেনে শেখ হাসিনা বলেন, তিনি এই জনসভায় বলেছিলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা কখনো বিরোধীদলের নেত্রীও হতে পারবো না। এতে করেও কি বোঝা যায় না- কারা এ হামলা চালিয়েছিল?

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ এখন উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে, স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে খাদ্যে। কিন্তু এ উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হচ্ছে কতিপয় দুর্বৃত্তের কারণে। তবুও আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি সব বাধা দূর করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে।

এসময় দলের সব স্তরের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।