সাঈদীর আপিলের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু

0
29
সুপ্রিম কোর্ট
সুপ্রিম কোর্ট (ফাইল ছবি)

supremecourt-bangladeshমানবতা বিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যুদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানিতে আসামিপক্ষের বক্তব্য শেষ হয়েছে। শুরু হয়েছে রাষ্ট্র পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারকের বেঞ্চে সাঈদীর আইনজীবী এসএম শাহজাহান বক্তব্য শেষ করার পরে রাষ্ট্রের প্রধান আ্যটর্নী জেনারেল মাহবুবে আলম বক্তব্য উপস্থাপন শুরু করেন।

তবে দুপুর একটার দিকে আদালত মুলতবি করা হলে জানানো হয় বুধবার তিনি  আবার বক্তব্য উপস্থাপন করবেন।

প্রসঙ্গত প্রসিকিউশনের আনা ২০টি অভিযোগের মধ্যে ইব্রাহিম কুট্টি ও বিসাবালীকে হত্যা এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ি-ঘরে আগুন দে্ওয়ার দুটি অভিযোগে গত বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি সাঈদীকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ওই মৃত্যুদণ্ড দেয়।
এই রায়ের বিরুদ্ধে গত ২৮ মার্চ আপিল করেন সাঈদী। অন্যদিকে প্রমাণিত হলেও সাজা না হওয়া ছয় অভিযোগে এই জামায়াত নেতার শাস্তি চেয়ে আপিল করে প্রসিকিউশন।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর এই মামলার আপিল শুনানি শুরু হয়। প্রথমে আসামিপক্ষ রায়, সাক্ষ্য ও জেরা উপস্থাপনের পর গত ২৯ জানুয়ারি যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করেন।

এছাড়া ট্রাইব্যুনাল যে ১২টি অভিযোগ থেকে সাঈদীকে খালাস দিয়েছে, সেগুলোতেও আপিলে ‘পূর্ণ ন্যায়বিচার’ চাওয়া হয়। গত ২৪ সেপ্টেম্বর এ মামলার আপিল শুনানি শুরু হয়।

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রথম রায়ে গত ২১ জানুয়ারি জামায়াতের সাবেক রুকন আবুল কালাম আজাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকারের ফাঁসির আদেশ আসে। পলাতক থাকায় তিনি এর বিরুদ্ধে আপিল করতে পারেননি।

গত বছরের ৫ ফেব্রুয়ারি আইসিটি দ্বিতীয় রায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। তবে আপিল শুনানি শেষে সুপ্রিম কোর্ট গত ১৭ সেপ্টেম্বর চূড়ান্ত রায়ে কাদের মোল্লাকেও মৃত্যুদণ্ড দেয়। এবং ১২ ডিসেম্বর ওই দণ্ড কার্যকর হয়।