এশিয়া কাপের পর্দা উঠছে আজ

0
106
asia-cup

asia-cupআজ পর্দা উঠছে এশিয়ার ‘বিশ্বকাপ’ খ্যাত এশিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের। দুপুরে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা স্টোডিয়ামে শুরু হবে এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন তিন দেশ- ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ছাড়াও স্বাগতিক বাংলাদেশ ও নবাগত আফগানিস্তান এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে।

শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের ময়দানী লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে পর্দা উঠছে এশিয়ার বৃহৎ এ ক্রিকেট যজ্ঞের। গতবারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান আর সদ্য সমাপ্ত সিরিজে ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে ‘হোয়াইটওয়াশ’ করে ফুরফুরে মেজাজে আছে লঙ্কানরা। সব মিলিয়ে প্রথম ম্যাচ থেকে টুর্নামেন্টের উত্তাপ ছড়াবে বলে ধারণা ক্রিকেট বিশ্লেষকদের।

সোমবার সন্ধ্যায় এক জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উন্মোচিত হয় এশিয়া কাপের ট্রফি। ট্রফিটিতে পাঁচ অধিনায়ক র্স্পশ করলেও  ফাইনালে একজন যোগ্য অধিনায়কের হাতেই শোভা পাবে এটি।

আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- টাইগার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, গতবারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তানের অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক, ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি, শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী। অধিনায়ক ছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, এশিয়া ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল হক এবং স্পন্সর কোম্পানির কর্মকর্তারা।

এদিকে ,উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় একটা টুর্নামেন্টের আগে আবারো মাঠের ভিতরের চেয়ে বাইরের সমস্যায় জড়িয়ে পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে প্রশাসনিক সমস্যা যাই থাকুক না কেন, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ জয়ী পাকিস্তান বেশ ভালো অবস্থায় আছে। অভিজ্ঞ ও তারুণ্যের মিশ্রণে গড়া দলটি বেশ আত্মবিশ্বাসী। মিসবাহ-উল হকের নেতৃত্বাধীন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটি শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখতে বদ্ধপরিকর। ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ খ্যাত পাকিস্তান যে কোনো কিছুই করতে পারে। এ পর্যন্ত দু’বার শিরোপা জয় করেছে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এ দলটি।

অন্যদিকে, অভিজ্ঞ মাহেলা জয়াবর্ধনে ও সাঙ্গাকারা থাকলেও আগের মতো শক্তিশালী নয় চারবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। যদিও দিনেশ চান্ডিমাল, কুশল পেরেরা, আশান প্রিয়াঞ্জন ও লাহিরু থিরিমান্নের মতো দক্ষ খেলোয়াড় দলে রয়েছে। লঙ্কান দলের বড় সুবিধা হলো গত এক মাস ধরে বাংলাদেশে আছে তারা। স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে জিতেছে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের সব।

বোলিং আক্রমণের নেতৃত্বে থাকা লাসিথ মালিঙ্গার সঙ্গে অধিনায়ক অলরাউন্ডার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ও থিসারা পেরেরা মূল শক্তি হিসাবে দলকে এগিয়ে নেবেন। মন্থর গতির উইকেটে দুই স্পিনার সাচিত্রা সেনানায়েকে ও অজন্থা মেন্ডিজও ঝলসে উঠতে পারেন।

গতবার বাংলদেশের কাছে হেরে সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়েছিলো টিম ইন্ডিয়া। তবে এবার হয়তো সেই দুঃস্বপ্ন আর দেখতে চাইবে না কোহলিরা।

এবারও ফেভারিট গেলবারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। গতবারের মতো তারা চাইবে শিরোপা উড়িয়ে দেশে নিয়ে যেতে।

এছাড়া এবার প্রথমবারের মত এশিয়া কাপে অংশ নিচ্ছে আফগানিস্তান। এ টুর্নামেন্টে অংশ নেয়াটাই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির ক্রিকেটের জন্য বড় এক অর্জন। খাতা কলমে বাকি চার দেশের চেয়ে দুর্বল হলেও মাঠের লড়াইয়ে কাউকেই ছেড়ে কথা বলবে না তারা।

এবারের আসরে ২টি ভেন্যু। নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ও ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়াম। এ দুই ভেন্যুতে হবে ১১টি ওডিআই ম্যাচ।

সবকিছু মিলিয়ে জমজমাট এক স্নায়ু প্রতিদ্বন্দ্বিতারই জানান দিচ্ছে এবারের দ্বাদশ এশিয়া কাপ টুর্নামেন্ট।

কেএফ