ফরিদপুরে হত্যাকাণ্ডের ১০ দিনেও মামলা নেয়নি পুলিশ

0
71
foridpur
ফরিদপুর মানচিত্র

ফরিদপুর ম্যাপফরিদপুরের সদরপুর উপজেলা সদরের মুটুকচর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে খলিল মুন্সী (৬০) নামে এক ব্যক্তি খুন হয়েছেন। হত্যাকাণ্ডের ১০ দিন পেরিয়ে গেলেও কোনো মামলা নেয়নি পুলিশ। তদন্ত রিপোর্টের দোহাই দিয়ে পুলিশ মামলা নিতে টালবাহানা করছে বলে অভিযোগ নিহতের পরিবারের ।

নিহতের পরিবারের দাবি- পূর্ব থেকে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল প্রতিবেশী ফরিদউদ্দিনের পরিবারের সাথে। নিহতের স্ত্রী রোকেয়া বেগমের দাবি, উপজেলা সদরের ১৯নং মটুকচর মৌজার ৫৯১নং দাগে নাল ও ৫৯২নং দাগে বাড়ির জমি ফরিদউদ্দিন কিছু দিন আগে একটি জাল দলিল করে (যার নং ১০,২২০ তাং ১০/১২/৬৩) দখল করে নেয়। খলিল মুন্সীর পক্ষের লোকজন ফরিদপুর জেলা সাব-রেজিস্টার তল্লাশি দিয়ে জানতে পারে ১০/১২/৬৩ তারিখে ১০২২০নং এ কোনো দলিল হয়নি। অত:পর খলিল মুন্সী পক্ষেররা বাঁধা দিতে এলে তাকে মারধর করে প্রতিপক্ষরা।

নিহতের কন্যা খালেদা বেগম বলেন, ১৫ ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকেলে প্রতিবেশী করিমন বেগমের পুকুরের হাঁস যাওয়াতে খিপ্ত হয়ে খলিল মুন্সীর বাড়িতে এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ দিতে শুরু করে। বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে এক পর্যায় করিমনের ছেলে ও ফরিদউদ্দিন পক্ষের লোক মতিয়ার রহমান লিটু (২৫) এসে খলিল মুন্সীকে মারধর করে। একপর্যায়ে তাদের ধাওয়া খেয়ে খলিল মুন্সী  দৌড়ে পালাতে গেলে বাড়ির সামনে চায়ের দোকানের সামনে মাটিতে পড়ে অসুস্থ হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়। স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যূ মামলা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়া পর হত্যার বিষয় নিশ্চিত হলে, হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

কেএফ