আদালত থেকে পালালো জুবায়ের হত্যা মামলার আসামিরা

0
65

জুবায়েরজাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী জুবায়ের আহমেদ হত্যা মামলার চার আসামি ট্রাইবুনাল থেকে পালিয়ে গেছে। রোববার ঢাকার ৪ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে তাদের জামিন বাতিলের আদেশ হওয়ার পরপরই সেখান থেকে পালিয়ে যায় তারা।

পালিয়ে যাওয়া চার আসামিরা হলেন, খন্দকার আশিকুল ইসলাম আশিক, খান মোহাম্মদ রইছ, মাহবুব আকরাম ও  ইসতিয়াক মেহবুব অরূপ। এ সময় ট্রাইব্যুনালের সামনে কোনো পুলিশ ছিলনা বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তবে, জামিন বাতিল হওয়া অপর দুই আসামি মো. রাশেদুল ইসলাম রাজু ও জাহেদুল ইসলাম আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ার জারি করেছে ট্রাইবুনাল।

এর আগে ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ বি এম নিজামুল হক আসামিদের জামিন বাতিলের আদেশ দেন।

এ প্রসঙ্গে  সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের পিপি এস এম রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “জামিন বাতিলের আদেশ হওয়ার পরপরই আসামিদের কাঠগড়ার নিচে থাকা এটি ফাঁকা জায়গা দিয়ে তারা বেরিয়ে চলে যান”।

রোববার ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্যগ্রহনের দিনে মামলার সাক্ষি ও গুলশান থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক হুমায়ুন কবির ট্রাইব্যুনালে এসে সাক্ষ্য দেন।

এই নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করলেন ট্রাইব্যুনাল। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামি ২৭ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছেন।

এর আগে ১১ জানুয়ারি মামলার শুনানি শেষ নিহত জুবায়েরের বন্ধুদের ওপর আদালত চত্বরে হামলা চালায় ওই আসামিরা। একই দিন আরও লাশ ফেলে দেওয়ার হুমকিও দেয় তারা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ করা যেতে পারে ২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি প্রতিপক্ষের নৃশংস হামালার স্বীকার হয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ৩৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী জুবায়ের আহমেদ।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার হামিদুর রহমান বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আসামিদের মধ্যে মাহবুব আকরাম ও নাজমুস সাকিব ওরফে তপু ২০১২ সালের ১৫ জানুয়ারি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

এসএসআর