বেসরকারি বিনিয়োগ নির্বিঘ্ন ও গতিশীল হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
69
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত

বিদ্যুৎ উৎপাদন ও অবকাঠামো উন্নয়নে গৃহীত প্রকল্পগুলো যথাসময়ে বাস্তবায়ন করা গেলে বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ নির্বিঘ্ন ও গতিশীল হবে বলে আশা করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বৃহস্পতিবার সংসদে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট সম্পর্কে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য সুত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত

তিনি বলেন, আমার স্বীকার করতে দ্বিধা নেই, নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে ব্যক্তিখাতের বিনিয়োগ গত কয়েক বছর ধরে জিডিপির ২১-২২ শতাংশের মধ্যেই সীমিত রয়েছে। অথচ মধ্যমেয়াদে কাঙ্ক্ষিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য এ হার জিডিপি’র ২৭ শতাংশে উন্নীত করা প্রয়োজন। তবে, আশার বিষয় হচ্ছে, সাম্প্রতিক মাসগুলোতে বিনিয়োগের সঙ্গে সম্পৃক্ত কতিপয় সূচকে ইতিবাচক অগ্রগতি পরিলক্ষিত হচ্ছে। এতে ব্যক্তিখাতে বিনিয়োগ স্থবিরতা কেটে যাচ্ছে বলে প্রতীয়মান হয়।

মুহিত বলেন, ব্যক্তিখাতে বিনিয়োগের প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণে আমাদের চলমান কার্যক্রম সম্পর্কে এবার সংক্ষেপে কিছু বলতে চাই। গ্যাসের সমস্যা সমাধানে এর উৎপাদন বৃদ্ধি ও অনুসন্ধান কার্যক্রম গ্রহণসহ জ্বালানি ঘাটতি পূরণে এলএনজি আমদানির উদ্যোগ নিয়েছি। বিদ্যুতের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি। যোগাযোগের ক্ষেত্রে ২০১৯ সালের মধ্যেই গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সেতু ও ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের কাজ সম্পন্ন করব। বর্তমানে মেট্রোরেল-৬ বাস্তবায়িত হচ্ছে। অন্যদিকে, সংশোধিত ‘স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান’ অনুযায়ী আরও মেট্রো লাইন, বিআরটি ও সার্কুলার রোড যুক্ত হবে। রেলখাতে গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়ে করিডোরগুলোকে ডাবল লাইনে উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছি। এ ছাড়া, ঢাকা হতে পদ্মা সেতু হয়ে যশোর পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প হাতে নিয়েছি। আমি মনে করি, দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়িতব্য প্রকল্পসহ এসব কার্যক্রম পরিকল্পনামাফিক বাস্তবায়িত হলে সামনের দিনগুলোতে ব্যক্তিখাতের বিনিয়োগ নির্বিঘ্ন ও গতিশীল হবে।

তিনি আরও জানান, ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ২১.৭৮ শতাংশ।

এসবি