চতুর্থ প্রান্তিকে রবির নীট মুনাফা শূন্য

0
38
রবি ব্যবসায়ী হালনাগাদ

রবি ব্যবসায়ী হালনাগাদসদ্য সমাপ্ত ২০১৩ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে দেশের তৃতীয় বৃহৎ মোবাইল অপারেটর রবি কার্যত কোনো মুনাফা করতে পারেনি। তবে সমাপ্ত ২০১৩ সালে কোম্পানিটি প্রায় এক হাজার ৭০০ কোটি টাকা আয় কয়েছে যা আগের বছর অর্থাৎ ২০১২ সালের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর রুপসী বাংলা হোটেলে ‘চতুর্থ প্রান্তিক ২০১৩ ব্যবসায়িক সফলতা’ ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে রবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুপুন বীরাসিংহে জানান গেল বছরের শেষ প্রান্তিকে কোম্পানিটির নীট মুনাফা ছিলো শূন্যের কোটায়।

তার মতে, দেশের অস্থির পরিবেশ ও থ্রিজিসেবা বাড়তি ব্যয়ের কারণে ২০১৩ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে কোম্পানিটি মুনাফা করতে ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি বলেন, গত প্রান্তিকের প্রতিকূল পরিবেশের পরেও ২০১৩ সালে রবির রাজস্ব বৃদ্ধি হয়েছে। আলোচ্য সময়ে রাজস্ব বৃদ্ধির পাশাপাশি অপারেটিং মুনাফা, ইবিআইটিডিএ(আর্নি বিফোর ইনকাম ট্যাক্স ডেপ্রিসেয়েশন অ্যান্ড অ্যামোরটাইজেশন) ও পিএটিতেও (প্রফিট আফটার ট্যাক্স)প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে প্রায় ৩০ ভাগ।

তবে দেশের অস্থির পরিবেশের কারণে রাজস্ব আদায় কম ও থ্রিজি সার্ভিস সংক্রান্ত খরচের কারণে চতুর্থ প্রান্তিকে এসে ইবিআইটিডিএ ও পিএটি কমে শূন্যের কোটায় দাঁড়িয়েছে। অথচ বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে এ কোম্পানির আয় হয়েছিল প্রায় এক হাজার ৭০০ কোটি টাকা।

 অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনায় চতুর্থ প্রান্তিকে নেটওয়ার্ক সম্পসারণ ও এ সর্ম্পকিত মূলধনী ব্যয় বেড়েছে ১০০ ভাগেরও বেশি। থ্রিজি, ভয়েস সার্ভিসের বর্ধিত চাহিদা মেটানো ও ডাটা সংযোগের মান বাড়ানোই এ ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে দেশের অবস্থা ভালো না থাকায় রাজস্ব আদায় কমেছে ৬ শতাংশ। ২০১৩ সালে মোট মূলধনী ব্যয় ১২.৮ বিলিয়নের বিপরীতে শুধুমাত্র চতুর্থ প্রান্তিকে ব্যয় হয়েছে ৬.৩ বিলিয়ন টাকা।

২০১৩ সালে রবির সফলতা তুলে ধরে প্রতিষ্ঠানটি ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুপুন বীরাসিংহে বলেন, এ বছর ৪৩ লাখ নতুন গ্রাহকসহ বর্তমানে আমাদের গ্রাহক সংখ্যা ২ কোটি ৫৪ লাখ। বর্তমানে রবির টুজি বিটিএসের সংখ্যা ৯ হাজার ৪৫০টি এবং ৩.৫ জি বিটিএস সংখ্যা ১ হাজারটি। বর্তমানে বিশ্বের ২০৭ দেশে রবির রোমিং সার্ভিস চালু রয়েছে। আর অংশিদারিত্ব রয়েছে বিভিন্ন দেশের পাঁচ’শর বেশি কোম্পানির সাথে।

এসময় তিনি আরও বলেন, রবি গত দুই বছরে দারুল সফলতা অর্জন করেছে। ২০১২ সালে প্রথম লাভের মুখ দেখার পর সেবছরই আমরা ৯১১ মিলিয়ন টাকা আয় করেছি। গত দুই বছর এ ধারাবহিকতা অব্যহত রয়েছে। তবে উচ্চ কর আমাদের লাভের খাতকে বাধাগ্রস্ত করছে।

২০১৩ সালে রবি ১১ হাজার ১শ ৮৪ মিলিয়ন টাকা সরকারকে কর দিয়েছে উল্লেখ করে চিফ ফাইনান্সিয়াল মাহতাব উদ্দিন বলেন, সিম রিপ্লেসমেন্ট কর ট্যাক্স নিয়ে এনবিআরের দাবি টেলিকম খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য উদ্বেগের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে।

এইউ নয়ন