দিনাজপুরের দুটি উপজেলায় ভোট কাল

0
37

Dinajpurপ্রথম দফার উপজেলা নির্বাচনে দিনাজপুরের দুটি উপজেলায় কাল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দিনাজপুর কাহারোল ও খানসামা এই দুই উপজেলায় ভোটগ্রহণ উপলক্ষ্যে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৯, ভাইস চেয়ারম্যান ১০ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

দিনাজপুর জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা নুরুজ্জামান তালুকদার জানান, কাহারোল ও খানসামা উপজেলার ৯৫টি ভোটকেন্দ্রে ৫৯৬টি ভোটকক্ষে ২ লক্ষ ১৪ হাজার ৬১৪ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

ভোটগ্রহণের জন্য প্রিজাইডিং, সহকারি প্রিজাইডিং এবং পোলিং অফিসার হিসেবে ১ হাজার ৯৭৬ জন কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করবেন। আইন-শৃংখলা রক্ষায় অতি গুরুত্বপূর্ণ ৬৮টি এবং সাধারণ ২৭টি কেন্দ্রসহ মোট ৯৫টি কেন্দ্রে ২ হাজার ৪১৫ জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত থাকবে। কাহারোল উপজেলায় ৪৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩৬টি অতিগুরুত্বপূর্ণ এবং ৭টি সাধারণ। খানসামা উপজেলায় ৫২টি কেন্দ্রের মধ্যে অতিগুরুত্বপূর্ণ ৩২টি এবং সাধারণ ২০টি।

এদিকে, কাহারোল উপজেলায় ১৯ দলীয় জোটের একক প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ এবং আওয়ামী লীগের প্রার্থী রয়েছেন তিনজন। বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক সরকারকে আওয়ামী লীগ তাদের প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করেছে।

বিদ্রোহী প্রার্থীরা হলেন-উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায় ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শরিফ উদ্দিন আহমেদ। এ নিয়ে রয়েছে এ উপজেলায় দলের মধ্যে চরম কোন্দল। তবে এলাকাটি হিন্দু অধ্যুষিত হওয়ায় সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছেন উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায়। একাধিক প্রার্থী থাকায় আওয়ামী লীগের ভোট ভাগ হয়ে বিএনপি প্রার্থীই বিজয়ী হবে বলে মনে করেন ভোটাররা।

অপরদিকে, খানসামায় এবার ৫জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। ১৯ দলীয় জোটের প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সভাপতি শহিদুজ্জামান শাহ্। এই উপজেলায় মহাজোটের হয়ে লড়াই করছেন ওয়ার্কাস পাটির সভাপতি মাহফুজার রহমান। তার বিরোধীতা করে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু হাতেম। উপজেলার অন্য প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন মোহাম্মদ আলী শাহ ও মোবাশ্বের হক মুক্তি।

কেএফ