২৪ মার্চ ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা

0
34

বিসিএসদীর্ঘদিন আটকে থাকা ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামি ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন সরকারি কর্ম কমিশন পিএসসি। রোববার কমিশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে লিখিত পরীক্ষার এই তারিখ ঘোষণা করা হয়।

এতে এর আগে বাদপড়া ২৮০ জন উপজাতিকে লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দিয়ে ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে পিএসসি।

আজ কমিশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামি ২৪ মার্চ থেকে ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও রংপুর কেন্দ্রে একযোগে ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার কেন্দ্র ও বিস্তারিত সময়সূচি পরবর্তীতে জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে।

৩৪তম বিসিএসের প্রলিমিনারিতে অনেক মেধাবী বাদ পড়েছেন অভিযোগ তুলে গত ১০ জুলাই থেকে আন্দোলন শুরু করেন চাকরি প্রার্থীরা। কোটার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরাও ওই আন্দোলনে যোগ দেয়। শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে গত ১৪ জুলাই ৩৪তম বিসিএসের পুনর্মূল্যায়িত ফল দেওয়া হয়। এতে রেকর্ড সংখ্যক ৪৬ হাজার ২৫০ জন পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হন।

আগের উত্তীর্ণ সবাইকে রেখেই পুনর্মূল্যায়িত ফল দেওয়া হয়েছে বলে পিএসসি দাবি করলেও প্রথমবার উত্তীর্ণদের মধ্যে ২৮০ জন উপজাতি বাদ পড়েন। এ নিয়ে বঞ্চিত আদিবাসীরা পিএসসি ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে লিখিত আবেদন করেন।

উত্তীর্ণ ৫৯ জন আবেদনকারীর পক্ষে ব্যারিষ্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া গত বছরের ২৮ জুলাই হাইকোর্টে একটি রিট করেন। আর এতে প্রথম ফলে উত্তীর্ণ ২৮০ জনকে বাদ দিয়ে প্রকাশিত ৩৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পুনর্মূল্যায়িত ফল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না সেই মর্মে রুল চাওয়া হয়।

এর ফলে, গত ১১ ফেব্রুয়ারি বাদ পড়া আদিবাসীদের যোগ করে ৩৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পুনর্মূল্যায়িত ফল আবারও প্রকাশের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের নির্দেশের পাঁচ দিন পর ‘বাদপড়া’ উপজাতিদের লিখিত পরীক্ষার জন্য যোগ্য ঘোষণা করে একই দিন লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হলো।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ জুলাই কোটার ভিত্তিতে ৩৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারির ফল দেয়া হয়, এতে ১২ হাজার ৩৩ জন উত্তীর্ণ হন।