অপুষ্টিতে ভুগছে খাদ্য খাত

0
122
Food Sector

Food Sectorঅপুষ্টিতে ভুগছে খাদ্য খাতের সাত কোম্পানি। কেননা কোম্পানিগুলো দীর্ঘিদন ধরে লোকসান গুনছে।  কোম্পানির ব্যার্থতার কারণে এ খাতের বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। কোম্পানিগুলোর সর্বশেষ প্রান্তিকে এ তথ্য জানা যায়।

এছাড়া তালিকাভুক্ত ১৮ কোম্পানির মধ্যে ৮টির মুনাফা বেড়েছে এবং ৪টির কমেছে।

সিভিও পেট্রো কেমিক্যালের অর্ধবার্ষিকী (জুলাই১৩-ডিসেম্বর১৩) হিসাবে কোম্পানিটি লোকসান করেছে ৪ কোটি ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি লোকসান করেছে ২ টাকা ৩ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় লোকসানের পরিমাণ ছিল ১ কোটি ২৭ লাখ ৯০ হাজার টাকা এবং ৬৫ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকে ফাইন ফুডস লোকসান করেছে ৬৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা এবং শেয়ার প্রতি ৪৯ পয়সা।পয়সা।যা আগের বছর একই সময় মুনাফা করেছিলো ২৭ লাখ ১০ হাজার টাকা এবং ২১ পয়সা।

মেঘনা কনেডেন্স মিল্ক অর্ধবার্ষিকীতে লোকসান করেছে ৩ কোটি ৬৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা শেয়ার প্রতি ২ টাকা ২৯ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল  ২ কোটি ৮৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা এবং ১ টাকা ৮১ পয়সা।

একইভাবে মেঘনা পেট অর্ধবার্ষিকীতে লোকসান করেছে ৭৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা শেয়ার প্রতি ৬৫ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৭৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং ১ টাকা ৬৪ পয়সা।

রহিমা ফুড অর্ধবার্ষিকীতে লোকসান করেছে ১ কোটি ৪০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি ৫০ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় মুনাফা করেছিল  ৭১ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং  টাকা ৩৬ পয়সা।

শ্যামপুর সুগার মিল অর্ধবার্ষিকীতে লোকসান করেছে  ১২ কোটি ৭০ লাখ ৯০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি  ২৫ টাকা ৪২ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়  মুনাফা করেছিল ১৩ কোটি ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা এবং ২৬ টাকা ৮ পয়সা।

জিল বাংলা সুগার মিল অর্ধবার্ষিকীতে লোকসান করেছে  ৭ কোটি ৫২ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি  ১২ টাকা ৫৪ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে লোকসান  করেছিল ৯ কোটি ৫০ লাখ ৫ হাজার টাকা এবং ২৬ টাকা ৮ পয়সা।

এছাড়া অর্ধবার্ষিকীতে মুনাফা করেছে এএমিস এল প্রাণের ২ কোটি ৪২ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি আয় করেছে ৩ টাকা ৩ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ২ কোটি ১৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং ২ টাকা ৭০ পয়সা।

এ্যাপেক্স মুনাফা করেছে ১ কোটি ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি আয় করেছে ১ টাকা ৭৮ পয়সা।যা আগের বছর একই সময় ছিল ১ কোটি  টাকা এবং ১ টাকা ৭৫ পয়সা।

বঙ্গজ মুনাফা করেছে ১ কোটি ৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি আয় করেছে ২ টাকা ৮৫ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ৭৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ২ টাকা ৬ পয়সা।

তৃতীয় প্রান্তিকের হিসাব অনুযায়ী ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো মুনাফা করেছে ৩৪৪ কোটি ৩০ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং শেয়ার প্রতি আয় করেছে ৫৭ টাকা ৩৮ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় ছিল ২৯৬ লাখ ২৯ লাখ ৩০ হাজার  টাকা এবং ৪৯ টাকা ৩৮ পয়সা।

মুনাফা করেছে জেমিনী সি ফুড, ন্যাশনাল টি, অলিম্পিক ইন্ড্রাসিট্রজ লিমিটেড এবং রংপুর ডেইরি ফুড।

অপরিদেকে মুনাফা কমেছে গোল্ডেন হার্ভেস্ট অ্যাগ্রো লিমিটেডের, ন্যাশনাল টি এবং বীচ হ্যাচারী কোম্পানির।

এসএ/এমআরবি/