বইয়ের প্রতি ভালবাসাই আমাদেরকে বই কিনতে উৎসাহ যোগাচ্ছে

0
124
sumsujjaman

sumsujjamanবাংলা ভাষার প্রতি ভালবাসাই আমাদের বই মেলাকে অনেক সমৃদ্ধ করেছে। বইয়ের প্রতি আমাদের এই ভালবাসা দারিদ্র হওয়া সত্ত্বেও আমাদেরকে বই কিনতে উৎসাহ যোগাচ্ছে। তবে মেলায় বিছিন্ন সমস্যা থাকলেও আগামি বছর আরও ভাল করব বলে মন্তব্য করেছেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান।

রোববার বিকেল ৪টায় বাংলা একাডেমির শহিদুল্লাহ ভবনের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

শামসুজ্জামান বলেন, নানা প্রতিকূলতা থাকা সত্ত্বেও মেলা করতে পেরিছি এটাই আমাদের সফলতা। তবে তা সম্ভব হয়েছে আপনাদের জন্যই। আমাদের দেশের মিডিয়া যেভাবে বই মেলাকে ফলোআপ করছে আর এদিক দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ আমাদের চেয়ে অনেক পিছিয়ে। তারা বইয়ের ব্যাপারে সচেতন নয়, যে বই পড়ার কোনো প্রয়োজন নাই তাও তারা পড়ে।

তিনি বলেন, তাদের ভাল দিক হল উন্নত মানের প্রুফ রিডার রয়েছে যা দিয়ে তারা ভাল মানের বই প্রকাশ করতে পারে।

মেলা আর্ন্তজাতিক করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের দেশের অবস্থা এমন হয় নাই যে আমরা আন্তর্জাতিক বই মেলা করতে পারব। আন্তর্জাতিক মানের হলে এখানে প্রতি বছর আমরা বিদেশি বড় লেখক ও সাহিত্যিকদের আমাদের শিল্পীদের পরিচয় করিয়ে দিতে চাই।

আর যদি ভারতের কোনো লেখকের বই আনা হয় তা কো্নো বড় লেখকদের হবে। বিশেষ করে ভারতের ডিকশনারি বইয়ের বেশি প্রাধান্য দেওয়া হবে। এর বাইরে হলে অবশ্যই কমিটির অনুমোধন দেওয়া হবে। যদি অনুমোদিত হয় তাহলে বই আসবে না হয় আসবে না বলে তিনি উল্লেখ্য করেন।

তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন, মেলায় আমরা যা করেছি আগামি বছর আরও ভাল করব। এজন্য আমাদের প্রকাশক থেকে শুরু করে সকলের সহযোগিতার প্রয়োজন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলা একাডেমির সচিব আলতাফ হোসেন, অমর একুশে  গ্রন্থমেলার সদস্য সচিব সাহিদা। বাংলা একাডেমির ডেপুটি ডিরেক্টর মুর্শিদ আনোয়ারের সঞ্চালনায় এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এসএস/সাকি