এরশাদের বাড়ি ঘিরে রাখায় রংপুরে ব্যাপক উত্তেজনা

0
68
ershad

ershadএরশাদের বাড়ি ঘিরে রাখার প্রতিবাদে দ্বিতীয় দফা অবরোধের শেষ দিনে  রংপুরে স্থানীয় জাতীয় পার্টির সরকারবিরোধী স্লোগান ও বিক্ষোভ সমাবেশকে ঘিরে পুরো নগরীতে ছিল টানটান উত্তেজনা।

অন্যদিকে মডার্ন মোড় থেকে জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজুসহ ৩ যুবদল নেতাকে পুলিশ আটক করায় রংপুরে চরম পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

সরকার বিরোধী আন্দোলনকে চাঙ্গা করতে শিবিরকর্মীরা আরকে রোডে মাহসড়েকর ওপর আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করেছে। অবরোধে দু-একটি ট্রেন চলাচলও করলেও যাত্রী সংখ্যা ছিল খুবই কম।

মডার্ন মোড়ে আঠারো দলীয় জোট নেতাকর্মীরা একত্রিত হয়ে অবরোধের পক্ষে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে। সকাল সাড়ে ৯ টায় পুলিশ পিকেটিং করার অভিযোগে জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল আলম নাজু, যুবদল নেতা খোকন ও শাকিলকে আটক করে পুলিশ ভ্যানে নিলে সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আঠারো দলের নেতাকর্মীরা পুলিশের ভ্যানে সামনে গিয়ে তাদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করতে থাকে। এক পর্যায়ে আঠারো দলের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেন নেতাকর্মীদের শান্ত করলে তাদের কোতয়ালী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এতে মডার্ন মোড়ে উত্তেজনা চলতে থাকে।  থানায় আধাঘণ্টা পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হলে মডার্ন মোড়ের উত্তেজনা কমে।

এ ব্যাপারে জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল আলম নাজু বলেন, পুলিশ তাদের অহেতুক হয়রানী করেছে।

এদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে আঠারো দলীয় জোট আহ্বায়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেনের নেতৃত্বে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়।

কোতয়ালী থানার ওসি সৈয়দ সাহাবুদ্দিন খলিফা জানান, পিকেটিং এর অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছিল। প্রমাণ না পাওয়ায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, কেউ কোন ধরনের নাশকতা করতে চাইলে তা কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে।

এআর