টুথপেস্টের ফ্লোরাইডেই বাধা পাচ্ছে শিশুদের বুদ্ধির বিকাশ

0
94
Toothpaste-Colors

Toothpaste-Colorsবাচ্চাদের দিনে অন্তত দুইবার দাত ব্রাশ করার অভ্যাস তৈরি করার কথা চিকিৎসাবিদরা প্রায় বলে থাকেন। কিন্তু এবার বাচ্চাদের জন্য  নিত্য ব্যবহার্য টুথপেস্টের মধ্যে থাকা ফ্লোরাইডের ব্যাপারে বিপদ সংকেত টেনে দিয়েছেন দুই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ। তাদের দাবি মুলত এই ফ্লোরাইডেই  বাধা পাচ্ছে শিশুদের বুদ্ধির বিকাশ।

হার্ভার্ড স্কুল অফ পাবলিক হেলথ এর ফিলিপ্পি গ্রান্ডজিয়ান এবং নিউ ইয়র্ক ইকাওন স্কুল অফ মেডিসিনের ফিলিপ ল্যান্ড্রিগান মিলিত ভাবে একটি গবেষণা চালিয়ে সম্প্রতি এমন বিপদ সংকেত প্রকাশ করেছেন তারা। খবর হাউজ স্টাফ ওয়ার্কস ডট কমের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইথানল, মিথাইলমারকারির মতো ছ’টি রাসায়নিক শিশুদের বুদ্ধির বিকাশে বাধা সৃষ্টি করে এমন গবেষণা আগেই করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্ত্ত এই দুই বিশেষজ্ঞ দাবি করছেন এমন ধরনের প্রায় ১২টি রাসায়নিক রয়েছে, যেগুলো শিশুদের বুদ্ধির উপর প্রভাব ফেলে। তার মধ্যে অন্যতম ফ্লোরাইড।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, রাসায়নিকটি দাঁতের ক্ষয়রোধে সাহায্য করে। ফলে অধিকাংশ টুথপেস্টেই রয়েছে এর উপস্থিতি। শুধু টুথপেস্টই নয়, বিভিন্ন কীটনাশক, ড্রাই ক্লিনিংয়ের ক্ষেত্রেও ব্যবহার হয় এই রাসায়নিক। অনেকক্ষেত্রে ট্যাপের জলেও মেশানো হয় ফ্লোরাইড।

তাদের দাবি, শিশুদের মধ্যে অটিজম, মনোযোগে ঘাটতি, ডিসলেক্সিয়ার মতো রোগ দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে৷ তথ্য বলছে, প্রতি ছ’জন শিশুর মধ্যে এক জন এ ধরনের রোগের শিকার। আর যে হারে ফ্লোরাইডের মতো রাসায়নিকের ব্যবহার বাড়ছে, তার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে এ ধরনের অসুখ।

গবেষকদের কথায়, ‘এ ধরনের রাসায়নিক নিঃশব্দে শিশুদের বুদ্ধি ধ্বংস করছে। প্রভাব পড়ছে তাদের আচার-আচরণে। ঘাটতি হচ্ছে মনোযোগে, যার প্রভাব পড়ছে তাদের পড়াশোনার উপর। উন্নয়নশীল দেশগুলিতেই এর প্রভাব বেশি, আর সেটাই সবচেয়ে চিন্তার বিষয়।

এস রহমান/