সফলতা হল এক ধরণের দক্ষতা: আবু সাইয়ীদ

0
29
sayed

sayedসফলতা হল এক ধরণের দক্ষতা ও যোগ্যতা। যে জীবনের কাছ থেকে বেশি নেয় সে হল সফল আর যে জীবনকে বেশি দেয় সে হল স্বার্থক। ডা. মালেক জীবন ও সমাজকে অনেক দিয়েছেন তাই তিনি স্বার্থক বলে মন্তব্য করেন বিশ্ব সাহিত্যের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সাইয়ীদ।

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ইনস্টিটউট অব চাইল্ড হেলথ অ্যান্ড শিশু স্বাস্থ্য ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জাতীয় অধ্যাপক এমআর খানের সভাপতিত্বে “জীবন জগৎ সফলতা” বইয়ের মোড়ক উম্মেচন অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আবু সাইয়ীদ বলেন, ডা. মালেকের লেখা বইটি নিরপেক্ষ। নব ধর্মের কথা বলা আছে এতে। শেষ বয়সে কোরআন-হাদিসের আলোকে বইটির মাধ্যমে তিনি দেশ ও জাতীকে দিক-নির্দেশনা দিয়েছেন।

সাবেক বিচার পতি আব্দুর রউপ বলেন, মানুষ এখনও নিজেকে মানুষ হিসেবে চিনতে পারেনি। যদি চিনতে পারত তাহলে মানুষ হয়ে মানুষ হত্যায় লিপ্ত হতো না।

আল্লাহ মানুষকে যে মেধাশক্তি দিয়েছেন তা কাজে লাগিয়ে ভাল কিছু না করে তার অপব্যবহার করছে।

অন্যায়-অত্যাচারে মানুষ এখন এমন পর‌্যায়ে চলে গেছে যে, হিউম্যান রাইটসের অব্যবহার করেও মানুষ ক্ষান্ত হচ্ছে না বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বিভিন্ন অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদের বরাত দিয়ে বলেন, পাকিস্তানী আল কায়েদার অনুসারীরা বাংলাদেশে এসে বোমা তৈরীর প্রশিক্ষণ দিচ্ছে এবং জঙ্গি তৎপরতা বাড়াতে তৎপর হয়ে উঠেছে।

ধর্ম নিয়ে অতি বাড়াবাড়ি বিপজ্জনক উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে যেভাবে জঙ্গি বাড়ছে তাতে সামনে বড় ধরণের বিপদ হতে পারে।

বইটির গুরুত্ব তুলে ধরে রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, ধর্মের পাশাপাশি বইটিতে নারীর মরযাদার কথাও বর্ণনা করা হয়েছে।

দেশে ৬০ শতাংশ নারী জমি-জমা বিষয়ে এসিড সন্ত্রাসের শিকার হচ্ছেন এমন আক্ষেপ প্রকাশ করে তিনি বলেন, হায়রে নারী জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে হতে হয় তাকে নির‌্যাতনের শিকার।

ডা. মোড়ল নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন তত্তাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সাইয়ীদ, বিচারপতি আব্দুর রউফ, জাতীয় অধ্যাপক এম আর খান, অধ্যাপক ডা. অরূপ রতন চৌধুরী প্রমুখ।

জেইউ/সাকি