আমিরের সালমান বন্দনা

aamir-salmanমাত্র আট বছর বয়সে  ইয়াদন কি বারাত এবং মাদহোশ এ শিশু অভিনেতা হিসাবে কাজ শুরু করেন । ১১ বছর পর প্রাপ্তবয়স্ক অভিনেতা হিসাবে কেতন মেহতার হোলি ছবিতে কাজ করেন । প্রথম উল্লেখযোগ্য ছবি হিসেবে ১৯৮৮ সালে  কিয়ামত সে কিয়ামত মুক্তি পায় । ছবিটি বিরাট সাফল্য পায় এবং লিডিং অভিনেতা  হিসাবে জনপ্রিয় হয়ে যান  আমির খান । এরপর প্রায় প্রতিবছর একটি করে ছবিতে অভিনয় করে  জনপ্রিয়তার সর্ব শিখরে উঠেছেন এই অভিনেতা ।

 

দীর্ঘ সময় ধরে  আমির, সালমান, শাহরুখ এই তিন খান বলিউডকে শাসন করে আসছে । সবাই প্রাণপণ লড়ে যাচ্ছেন বলিউডি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির এক নাম্বার আসনটি  দখলে নেওয়ার । কিন্ত, ‘মি. পারফেক্টশনিস্ট’ বলে খ্যাত তারে জামিন পার , থ্রি ইডিয়েট, তালাশ এবং চলতি বছরে মুক্তির অপেক্ষায় থুম থ্রির এই অভিনেতা দেখালেন ব্যতিক্রমী  দৃষ্টান্ত ।

তবে এই তিন খানের মধ্যে মেধা আর যোগ্যতায় যিনি সবার চাইতে এগিয়ে সেই আমির এবার গুনগান গাইলেন আরেক খান সালমানের।

আমিরের ভাষ্য, ‘আমি মনে করি, সালমান আমার চেয়ে এগিয়ে আছেন। তার ‘বডিগার্ড’ ছবিটি বলিউডি চলচ্চিত্রের সব রেকর্ডকে ভেঙে দিয়েছে।

তিনি জানালেন,  প্রতিযোগীতা আমার স্বভাবের মধ্যে পড়ে না । মুন্নাভাই ছবিতে সঞ্জয়ের অভিনয়, বরফিতে রনবীর কাপুর অভিনয়ও আমাকে অনেক বেশি মুগ্ধ করেছে । সালমান আমার বন্ধু, আমার চেয়ে একজন বড় তারকা ।

উল্লেখ্য, এর আগে ১৯৯৪ সালে ‘আন্দাজ আপনা আপনা’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন আমির খান ও সালমান খান। ছবিটি সে সময় দারুণ ব্যবসা করেছিল। এরপর আর কোনো ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করতে দেখা যায়নি তাদের।