সাত বছর পর আলোচনার টেবিলে দুই কোরিয়া

0
84
south-korea-north-korea-high-level-talk

south-korea-north-korea-high-level-talkপ্রায় সাত বছর পর নিজেদের মধ্যে আলোচনা আবার শুরু করেছে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া। বুধবার সীমান্তবর্তী নিরপেক্ষ অঞ্চল পানমুনজম গ্রামে এক বৈঠকে মিলিত হয়েছেন দুই কোরিয়ার কর্তাব্যক্তিরা। খবর বিবিসি এবং রয়টার্স বার্তা সংস্থার।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানি সাম্রাজ্যের পতনের পর কোরিয়া উপদ্বীপে নিজেদের প্রভাব অক্ষুণ্ন রাখার উদ্দেশ্যে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার পত্তন ঘটায় সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং যুক্তরাষ্ট্র।

সর্বশেষ ২০০৭ সালে আলোচনার টেবিলে মিলিত হয়েছিল দুই কোরিয়া। গত সপ্তাহে পিয়ংইয়ংয়ের পক্ষ থেকে আবার আলোচনা শুরুর আহ্বান জানালে তাতে সাড়া দেয় সিউল।

দক্ষিণ কোরিয়ার উপ-নিরাপত্তা উপদেষ্টা কিম কিউ হুন সিউল প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। কিউ হুন বলেন, কোরীয় উপদ্বীপে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য এটি একটি সুযোগ। শান্তি নিশ্চিত করার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাব।

আলোচনার অংশ হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ সামরিক মহড়া বন্ধের দাবি জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া। জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার মুখপাত্র বলেন, শান্তি আলোচনার অংশ হিসেবে সব ধরনের সামরিক মহড়া বন্ধ করা উচিত। পিয়ংইয়ংয়ের পক্ষে ওয়ার্কাস পার্টির দ্বিতীয় শীর্ষস্থানীয় নেতা উং টং ইয়ন উপস্থিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে এই বৈঠকের কোনো আলোচ্যসূচি নির্ধারিত হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, চলতি মাসে শেষের দিকে অনুষ্ঠিতব্য দুই কোরিয়ার বিচ্ছিন্ন স্বজনদের পুনর্মিলনী সম্পর্কে আলোচনা হতে পারে এই বৈঠকে।